ইন্টারনেটে কোন তথ্য যাচাই ছাড়া শেয়ার থেকে বিরত থাকুন ……….এসএম জাকারিয়া

স্টাফ রিপোর্টার
‘সত্য মিথ্যা যাচাই আগে, ইন্টারনেট শেয়ার পরে’ এই স্লোগানে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের উদ্যোগে এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদপ্তরের সহযোগিতায় আগামি ১২ ডিসেম্বর দেশব্যাপী বর্ণাঢ্যভাবে তৃতীয়বারের মত ‘ডিটিজাল বাংলাদেশ দিবস-২০১৯’ উদযাপিত হবে। এই উপলক্ষে গতকাল সোমবার সকাল ১০টায় চাঁদপুর জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে প্রস্তুতিমূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) এসএম জাকারিয়া।
সভাপতির বক্তব্যে তিনি বলেন, আগে ডিজিটাল শব্দের কথা বললে মানুষ এলোমেলো কথা বলতেন। কিন্তু এখন আর তা নয়, ডিজিটাল প্রযুক্তির মাধ্যমে বিদ্যুৎ বিল, পানির বিল, গ্যাস বিল ইত্যাদি পরিশোধ করেন। আমাদের সাধারণ মানুষের কাছে গিয়ে বুঝাতে হবে, কিভাবে সরকার ডিজিটাল প্রযুক্তির মাধ্যমে সেবা দিচ্ছে।
তিনি আরো বলেন, ফেসবুক কিংবা ইন্টারনেটে পাওয়া সংবাদ সমাজের অনেক উচ্চ পর্যায়ের লোকজন না বুঝে শেয়ার করে। কোন কিছু না পড়ে এবং না বুঝে শেয়ার করা থেকে বিরত থাকতে হবে। এক্ষেত্রে সরকারের গোয়েন্দা সংস্থার দায়িত্বরতদের ভূমিকা রাখতে হবে। প্রয়োজনে আগামি ১২ ডিসেম্বরের আগে সমাজের শিক্ষিত সমাজ ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মানুষকে একত্রিত করে গুজবসহ রটানো বিষয়ে শেয়ার না করার জন্য বুঝাতে হবে।
অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদপ্তর চাঁদপুরের প্রোগ্রামার মো. জাকির হোসেন।
উপস্থিত ছিলেন এনএসআই’র যুগ্ম পরিচালক মোহাম্মদ আজিজুল হক, চাঁদপুর সরকারি কলেজের শিক্ষক মহসিন আরাফাত, সঞ্জয় কুমার সাহা, চাঁদপুর টেকনিক্যাল স্কুলের অধ্যক্ষ ইঞ্জিনিয়ার মো. সিরাজুল ইসলাম, চাঁদপুর জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ওসি নুর হোসেন মামুন, ডা. সাজিদা বেগম, মো. মমিনুল ইসলাম, সহকারী প্রকৌশলী ইমাম হোসাইন, সহকারী প্রকৌশলী বিটিসিএল আতাউর রহমান পাটওয়ারী, হাসান আলী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক মানিক হোসাইন, পরিবেশ অধিদপ্তরের নমুনা সংগ্রহকারী মো. মোবারক হোসাইন, মো. শাহাবুদ্দিন, শিক্ষক প্রতিনিধি জিয়াউর রহমান, আনোয়ার হোসেন, আফজাল, সাইফুল ইসলাম, জহির হাসান, খোরশেদ আলম, সেলিম রেজা, ইব্রাহীম খলিল, পিএম বিল্লাল প্রমুখ।