কচুয়ায় শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠান প্রধান অধ্যক্ষ জালাল চৌধুরী

স্টাফ রিপোর্টার

কচুয়া বঙ্গবন্ধু সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ শাহ মো.জালাল উদ্দীন চৌধুরী উপজেলা পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠান প্রধান (অধ্যক্ষ) নির্বাচিত হয়েছেন। জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ ২০১৯ উপলক্ষে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসের আয়োজনে গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে অধ্যক্ষ শাহ মো. জালাল উদ্দীন চৌধুরী শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠান প্রধান (অধ্যক্ষ) হিসেবে অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি উপজেলা নির্বাহী অফিসার নীলিমা আফরোজের হাত থেকে তিনি সনদপত্র ও পুরস্কার গ্রহণ করেন।

জানা যায়, শাহ মো. জালাল উদ্দিন চৌধুরী ১৯৮৮  সালের ১ মার্চ  হাজীগঞ্জের বলাখাল মকবুল আহমেদ ডিগ্রি কলেজে প্রভাষক হিসেবে যোগদানের মাধ্যমে মহান শিক্ষকতা পেশা হিসেবে গ্রহণ করেন। তিনি ওই কলেজে প্রভাষক, সহকারী অধ্যাপক ও ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ হিসেবে টানা ২৪ বছর অত্যন্ত সুনাম ও সততার সাথে দায়িত্ব পালন করেন। ওই সময়ে তিনি দু’টি মাদ্রাসায় প্রভাষক হিসাবেও দায়িত্ব পালন করেন। পরবর্তীতে ২০১২ সালের ১ এপ্রিল কচুয়া বঙ্গবন্ধু ডিগ্রি কলেজে অধ্যক্ষ হিসেবে যোগদান করেন। এই কলেজটি ২০১৮ সালের ৮ আগস্ট জাতীয়করণ (সরকারি) করা হয়।

অধ্যক্ষ শাহ মো.জালাল উদ্দীন চৌধুরী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় হতে বাংলায় স্নাতকোত্তর (অনার্স-মাস্টার্স) ডিগ্রি লাভ করেন। তিনি চাঁদপুর সদর উপজেলার মৈশাদী গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ১৯৯৩ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি ‘দৈনিক জনকণ্ঠ’ পত্রিকার প্রতিষ্ঠাকালীন সময় হতে ওই পত্রিকার চাঁদপুর জেলা প্রতিনিধি হিসাবে এখনো দায়িত্ব পালন করছেন। ১৯৯৯ সালে চাঁদপুর থেকে প্রকাশিত ‘দৈনিক চাঁদপুর দর্পণ’ পত্রিকার নির্বাহী সম্পাদক হিসাবে যোগদান করে এখনো দায়িত্ব পালন করছেন।

২০০৩-১০ পর্যন্ত ইউসেপের আর্থিক সহযোগিতায়, ঢাকাস্থ প্রেসলাইন মিডিয়া সেন্টারের পৃষ্ঠাপোষকতায় চাঁদপুর জেলা শিশু সাংবাদিকদের টিম লিডার হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন। পাশাপাশি ২০১০ সালে চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ছিলেন।

অধ্যক্ষ শাহ মো.জালাল উদ্দিন চৌধুরী কচুয়ার ঐহিত্যবাহী বঙ্গবন্ধু সরকারি কলেজে যোগদানের পর থেকে কলেজের সার্বিক উন্নয়নে বিশেষ ভূমিকা পারন করেন। বিশেষ করে গুণগত শিক্ষার মানোন্নয়ন, ডিগ্রি ও এইচএসসি পরীক্ষার ফলাফল অত্যন্ত সাফল্যজনক বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন। আর তাঁর এই বলিষ্ঠ নেতৃত্বের কারণেই এ কলেজটি ২০১৮ সালে শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠান হিসাবে স্বীকৃতি পায়।

এক প্রতিক্রিয়ায় তিনি বলেন, আমি একজন শিক্ষক, এটাই আমার বড় পরিচয়। শিক্ষক হিসেবে আমি জীবনের শেষদিন পর্যন্ত শিক্ষার্থী ও সবার মাঝে বেঁচে থাকতে চাই। কচুয়া উপজেলা পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠান প্রধান (অধ্যক্ষ) নির্বাচিত হওয়ায় তিনি প্রথমে মহান আল্লাহ’তাআলা, সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মহীউদ্দীন খান আলমগীর এমপি, কলেজ গভর্নিং বডির সাবেক সভাপতি, ২১ শে পদকপ্রাপ্ত অধ্যাপক ড. মুনতাসীর মামুন, গভর্নিং বডির সাবেক সদস্যবৃন্দ, অভিভাবক, শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের প্রতি অশেষ কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

এদিকে কচুয়া বঙ্গবন্ধু সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ শাহ মো.জালাল উদ্দীন চৌধুরী ২০১৯ সালে  উপজেলা পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠান প্রধান নির্বাচিত হয়েছেন এলাকার বহু শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধান, সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের পক্ষ থেকে তাঁকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন।

 

২৯ আগস্ট, ২০১৯।