চাঁদপুরে আগাম ঈদুল আজহা উদযাপন করলেন অর্ধ শতাধিক গ্রামের মানুষ


স্টাফ রিপোর্টার
চাঁদপুরের ৫টি উপজেলার অর্ধ শতাধিক গ্রামে গত রোববার পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপিত হয়েছে। সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে দীর্ঘ ৯০ বছর যাবৎ এসব গ্রামে আগাম রোজা ও কোরবানির ঈদ পালন করে আসছে। তারই ধারাবাহিকতায় এবারও একদিন আগে ঈদুল আজহার নামাজ ও পশু কোরবানি করছেন এসব গ্রামের মানুষরা।
হাজীগঞ্জ, ফরিদগঞ্জ, মতলব উত্তর, শাহরাস্তি ও কচুয়া উপজেলার অর্ধ শতাধিক গ্রামের অর্ধ লক্ষাধিক মুসলিম আগাম ঈদুল আজহা উদযাপন করেছেন।
ঐদিন সকাল ৯টায় হাজীগঞ্জের সাদ্রা গ্রামের সাদ্রা হামিদিয়া সিনিয়র মাদরাসা প্রাঙ্গণে ঈদুল আজহার জামাতে ইমামতি করেন মাওলানা মো. আরিফুল্লাহ। মুন্সীরহাট জামে মসজিদ, টোরা মুন্সীরহাট ঈদগাহ ময়দানসহ বিভিন্ন স্থানে ঈদের জামাত সকাল ৯টায় ও ১০টায় শুরু হয়। এছাড়া ফরিদগঞ্জের কামতা, বদরপুর, বাচপাড়, মূলপাড়া, কাইতয়াড়া, সুরঙ্গচাল, বাসারা ও লক্ষীপুরে ঈদের জামাতের পর ঈদকে ঘিরে বিভিন্ন এলাকায় মেলাও বসে।
১৯২৮ সালে হাজীগঞ্জ উপজেলার সাদ্রা দরবারের মরহুম পীর মাওলানা ইসহাক (রহ.) প্রথম বাংলাদেশে এ মতটি চালু করেন। পরবর্তীতে তাঁর অনুসারী হয়ে এসব অঞ্চলের মুসলমানরা চাঁদ দেখার উপর নির্ভরশীল না হয়ে প্রতিটি ধর্মীয় উৎসব সৌদি আরবের সাথে মিল রেখে পালন করে থাকেন।

১৫ আগস্ট, ২০১৯।