চাঁদপুরে করোনা প্রতিরোধে তৎপর প্রশাসন

রাস্তা-ঘাট ফাঁকা, দোকান-পাট বন্ধ



স্টাফ রিপোর্টার
সরকারের নির্দেশনার আলোকে চাঁদপুরে করোনা প্রতিরোধে ব্যাপক তৎপরতা চালাচ্ছে জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসন। শহরের ঔষধ, কাঁচা মালের দোকান ও সেবামূলক প্রতিষ্ঠান ছাড়া বাকি সব ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে।
গতকাল বুধবার সকাল থেকে পুলিশ শহরের পাল বাজার গেইট, কালিবাড়ী শপথ চত্বর, ছায়াবাণীর মোড়, মিশন রোড, বাসস্ট্যান্ড, ওয়ারলেছ মোড়, বাবুরহাটসহ শহরের গুরত্বপূর্ণ স্থানে চেক পোস্ট বসিয়ে অপ্রয়োজনীয় যানবাহন চলাচল না করার জন্য নিদের্শনা দিচ্ছে। মঙ্গলবার বিকেল থেকে বন্ধ রয়েছে চাঁদপুর-ঢাকা নৌ-রুটের যাত্রাবাহী লঞ্চ ও ট্রেন। প্রয়োজন ছাড়া কোন যানবাহন চলাচল করছে না।
শহরের বাসিন্দাদের বাসায় থাকার জন্য নির্দেশ দেয়া হয়েছে এবং মাইকিং করা হয়েছে। প্রত্যেক নামাজের আগে ও পরে মসজিদ থেকে মাইকিং করে ঘর থেকে বাহির না হওয়ার জন্য নির্দেশ দিচ্ছেন স্থানীয় জনপ্রতিনিধি। গুরুত্বপুর্ণ স্থানে অবস্থান নিয়েছে পুলিশ এবং আইন অমান্যকারীদের সতর্কতামূলক শাস্তি দেয়া হচ্ছে। চাঁদপুর থেকে মালবাহী ট্রাক, পিকআপ ভ্যান ছাড়া অন্য কোন যানবাহন ছেড়ে যায়নি। যারা নির্দেশনা অমান্য করেছেন তাদের কান ধরে উঠ-বস করাতেও দেখা যায়।
অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. জাহেদ পারভেজ চৌধুরী বলেন, সরকারি নির্দেশনার আলোকে চিকিৎসক, রোগী বহনকারী পরিবহন ও প্রয়োজনীয় বাহন ছাড়া বাকী সকল পরিবহন বন্ধ করা হয়েছে। ব্যবসা প্রতিষ্ঠানও বন্ধ রয়েছে। যারা ঘর থেকে বাহির হয়েছেন তারা একান্ত প্রয়োজনে কাঁচা বাজার কিংবা ঔষধ ক্রয় করার জন্য আসছেন। এর বাহিরে যারা আসছে তাদেরকে বুঝিয়ে সরকারি নিদের্শনা নিশ্চিত করছি।
অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মাহমুদ জামান জানান, বুধবার সকাল ১০টা পর্যন্ত জেলায় হোম কোয়ারেন্টিনে রয়েছে ৫৯৪ জন। ১৪ দিন অতিক্রম হওয়ায় স্বাভাবিক জীবন-যাপনে এসেছে ১২৯ জন। নতুন কেউ হোম কোয়ারেন্টিনে যোগ হননি।