চাঁদপুরে চা দোকানীর মৃত্যু, আটক ২ কিশোর


বেপরোয়া গতির মোটর সাইকেলের আঘাতে

স্টাফ রিপোর্টার
দুই কিশোরের বেপরোয়া গতির মোটর সাইকেলের আঘাতে আ. জলিল পাটওয়ারী নামে এক চা দোকানীর মৃত্যু ঘটেছে। এ ঘটনায় দায়ের করা মামলায় পুলিশ ওই দুই কিশোরকে আটক করেছে। গত ১৪ এপ্রিল রাত ৯টায় চাঁদপুর শহরের স্টেডিয়াম রোডে দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হয় আ. জলিল। ১০ দিন মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে গত মঙ্গলবার ঢাকা মেডিকেল কলেজে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন তিনি।
চাঁদপুর শহরে উঠতি বয়সী বেশকিছু তরুণ ও কিশোর বেপরোয়া গতিতে মোটর সাইকেল চালিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি করে আসছে। বেপরোয়া মোটর সাইকেল চালানোর কারণে দুর্ঘটনায় পতিত হয়ে অনেকের প্রাণ যাচ্ছে। তেমনি শহরের হাসান আলী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণির ছাত্র নাহিদ (১৪) ও হৃদয় (১৪) বেপরোয়া গতিতে মোটর সাইকেল চালিয়ে পথচারী আ. জলিল পাটওয়ারীকে আহত করলে পরে মৃত্যু ঘটে।
জানা গেছে, মতলব দক্ষিণ উপজেলার গাবুয়া পাটওয়ারী বাড়ির আ. জলিল পাটওয়ারী চাঁদপুর আউটার স্টেডিয়াম মার্কেটের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে বাসায় ফিরছিলো। পথে স্টেডিয়াম রোডে ওই দুই কিশোর নাহিদ ও হৃদয় বেপরোয়া গতিতে মোটর সাইকেল চালিয়ে তাকে চাপা দেয়। এতে করে জলিল পাটওয়ারী মাথায় প্রচন্ড আঘাত পান। দুর্ঘটনার পর পথচারীরা উদ্ধার করে প্রথমে চাঁদপুর জেনারেল হাসপাতাল পাঠায় পরে রাতেই তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করে। ১০ দিন মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে আ. জলিল পাটওয়ারী গত মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৬টায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।
গত সোমবার আ. জলিল পাটওয়ারীর বড় ভাই মো. হানিফ পাটওয়ারী মোটর সাইকেল চালক হৃদয় ও নাহিদকে অভিযুক্ত করে চাঁদপুর মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন। তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মিরাজ হোসেন খান ওইদিন গভীর রাতে তাদের আটক করে। আটকের কয়েক ঘণ্টা পরই আহত জলিল পাটওয়ারীর মৃত্যু ঘটে। জলিল পাটওয়ারী স্ত্রী, ১ মেয়ে ও ১ ছেলে রেখে যান।