চাঁদপুরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধানদের সাথে মতবিনিময়

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্রতি মাসেই আইন-শৃংখলা মিটিং করতে হবে
………………..জেলা প্রশাসক মো. মাজেদুর রহমান খান

সজীব খান
চাঁদপর সদর উপজেলার প্রাথমিক, মাধ্যমিক, মাদ্রাসা ও কলেজসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানদের সাথে সমসাময়িক বিষয় নিয়ে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার বেলা ১১টায় চাঁদপুর সদর উপজেলা মিলনায়তনে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক মো. মাজেদুর রহমান খান।
তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেন, বাংলাদেশে এখন টেলিভিশন, পেপার পত্রিকা ও সোসাল মিডিয়ায় চোখ রাখলেই শিশু নির্যাতন, নারী নির্যাতন ও খুনসহ বিভিন্ন অনিয়ম বিশৃংখলার খবর পাওয়া যাচ্ছে। এসব অনিয়ম বিশৃংখলার অধিকাংশই মাদ্রাসা ও স্কুলের শিক্ষক দিয়েই হচ্ছে। আমাদের কোমলমতী শিক্ষার্থীরাও এসব সংবাদের জন্য চরম দুশ্চিন্তায় রয়েছে। দেশের সর্বস্তরেই চাঁদপুরের সুনাম রয়েছে। সুনামের জন্য চাঁদপুর অনেক ভাল কাজের স্বাক্ষী হয়ে আছে। চাঁদপুর থেকে নারী নির্যাতন, শিশু নির্যাতন বন্ধের জন্য প্রতিটি বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটি, এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে সচেতনতামূলক সমাবেশ করতে হবে। বিদ্যালয়ে সাথে জড়িত সবাইকে নিয়েই মাসে ন্যূনতম একটি করে মা সমাবেশ ও আইন-শৃংখলার মিটিং করতে হবে।
তিনি আরো বলেন, সন্তানদের বিদ্যালয়ে পাঠিয়ে অভিভাবকদের দায়িত্ব নিয়ে ও সব সময় খোঁজ-খবর রাখতে হবে। ছাত্র-ছাত্রীরা কখন কোথায় যায় সেদিকে ও খেয়াল রাখতে হবে। প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষিকাদের বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের সাথে ভালো ব্যবহার করতে হবে। নিজের সন্তানদের মত নজর দিয়ে তাদের লেখা-পড়ার উৎসাহ যোগাতে হবে। সব স্থান থেকেই ইভটিজিং বন্ধ করতে হবে। যেখানে কোমলমতী শিক্ষার্থীরা ইভটিজিংয়ের শিকার হয় সেখানেই সবাই মিলে ইভটিজিংকারীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিতে হবে। দেশের যে কোন পরিস্থিতির উপর ভিত্তি করে মাসিক মিটিং অব্যাহত রাখতে হবে।
তিনি বলেন, চাঁদপুরের প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আইন-শৃংখলার উপর মিটিং করতে হবে। মিটিং করে পেপার-পত্রিকাসহ সোসাল মিডিয়ার প্রকাশ করতে হবে। শিক্ষকদের অব্যশই নৈতিক ও সৎ চরিত্রের অধিকারী হতে হবে। বাংলাদেশকে সোনার বাংলা করতে হলে অবশ্যই শিক্ষকদের একটু বেশি সচেতন হতে হবে। কারণ শিক্ষকরাই ছাত্র-ছাত্রীদের মানুষ করার জন্য অনেক পরিশ্রম করেন।
চাঁদপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কানিজ ফাতেমার সভাপতিত্বে ও পরিচালনায় আরো বক্তব্য রাখেন স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত নারী মুক্তিযোদ্ধা ডা. সৈয়দা বদরুন নাহার, পুরান বাজার ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ রতন কুমার মজুমদার, চাঁদপুর সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম নাজিম দেওয়ান, ভাইস চেয়ারম্যান আইয়ুব আলী বেপারী, বাবুরহাট উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের অধ্যক্ষ মোশারেফ হোসেন, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি শহীদ পাটওয়ারী, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার নাজমা বেগম, এমএম নুরুল হক উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সাখাওয়াত হোসেন, গনি মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্বাস উদ্দিন, শিক্ষক মোস্তফা খান প্রমুখ।
এসময় বুনিয়াদি প্রশিক্ষণ কোর্সের শিক্ষানবিস বিসিএস ক্যাডারের কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা তফু আহম্মেদ, সহকারী পুলিশ সুপার জাহিদ আহসান, সহকারী কমিশনার আছসা জাহান, কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা হোসনেয়ারা খাতুন, মাহবুব আলম, মো. রাকিবুল হাসার, বাংলাদেশ বেতারের সহকারী পরিচালক মো. মনিরুজ্জামান লাভুসহ বিভিন্ন স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসার অধ্যক্ষরা উপস্থিত ছিলেন।

১০ জুলাই, ২০১৯।