চাঁদপুর জেলা মাসিক আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভা

পদ্মা সেতুতে রক্ত লাগার গুজব আর শুনতে চাই না
………….মোহাম্মদ শওকত ওসমান

এস এম সোহেল
চাঁদপুর জেলা মাসিক আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল রোববার সকাল ১০টায় জেলা প্রশাসক সম্মেলন কক্ষে সভায় সভাপতিত্ব করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ শওকত ওসমান।
তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেন, সব উপজেলা ও ইউনিয়ন পর্যায় আইন-শৃঙ্খলা বিষয়ক সভা করতে হবে এবং তাদের প্রতিবেদন প্রেরণ করতে হবে। যে কোন ঘটনা ঘটার সাথে সাথে সংশ্লিষ্টদের কাছে তথ্য চলে আসতে হবে। সেভাবেই নেটওয়ার্ক তৈরি করতে হবে। জেলার সব উপজেলার সংশ্লিষ্ট জনপ্রতিনিধিরা আগামি আইন-শৃঙ্খলা ও উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির সভায় তাদের তথ্য জানাতে হবে। পরিষদের একজন সদস্য হলো প্রান্তিক জনগণের কাছাকাছি মানুষ। যেখানে যে যে দায়িত্বে আছে সবাইকে কাজ করতে হবে।
তিনি আরো বলেন, ইদানিং পনিতে ডুবে মৃত্যু এবং নারী ও শিশু নির্যাতন বেড়ে যাতে। শিক্ষার্থীদের সচেতন করার জন্য সবাইকে কাজ করতে হবে। পদ্মা সেতুতে রক্ত লাগবে এ ধরনের ইস্যু (গুজব) আমরা আর শুনতে চাই না। সবাইকে সচেতন ও সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে।
তিনি বলেন, সরকারের মহাউন্নয়নের জোয়ারে কিছু দুষ্টক্ষত আমাদের বিভিন্নভাবে প্রতারিত ও প্রভাবিত করার চেষ্টা করছে। সব জনপ্রতিনিধিদের সম্পৃক্ততা নিশ্চিত করতে হবে। সত্যিকার অর্থে সবাইকে শান্তির জন্য দেশটাকে উন্নয়নের এবং সোনার বাংলাদেশ বিনির্মাণে কাজ করবে। বসে থাকার দিন এখন আর নেই। সবাইকে প্রধানমন্ত্রীর ভিশন বাস্তবায়নে এগিয়ে আসতে হবে। বর্তমান সরকারের ইমেজ ও সরকার দেশবাসীর প্রতি প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন করছে। সরকার যা বলছেন তাই করছেন। এতে করে বাংলাদেশের উন্নয়ন হচ্ছে। বাংলাদেশের মানুষ সরা বিশ্বের সাথে যোগাযোগ রক্ষা করছে। আসুন সবাই জাতির জনকের সোনার বাংলা গড়তে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করি।
বিগত সভার কার্যবিবরণী পাঠ করেন অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ জামান।
এ সময় আরো বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার এম এ ওয়াদুদ, এনএসআই যুগ্ম-পরিচালক মো. আজিজুল হক, স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত নারী মুক্তিযোদ্ধা ডা. সৈয়দা বদরুন নাহার চৌধুরী, সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নূরুল ইসলাম নাজিম দেওয়ান, ফরিদগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাড. জাহিদুল ইসলাম রোমান, মতলব উত্তর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এম এ কুদ্দুছ, মতলব দক্ষিণ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এএইএম গিয়াস উদ্দিন, শাহরাস্তি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. ফরিদ উল্যাহ চৌধুরী, হাজীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান গাজী মাঈনুদ্দিন, কচুয়া পৌরসভার মেয়র নাজমুল আলম স্বপন, হাইমচর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফেরদৌসী বেগম, চাঁদপুরের পাসপোর্ট কর্মকর্তা মো. তাজবিল্লাহ প্রমুখ।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন হাজীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বৈশাখী বড়ুয়া, মতলব দক্ষিণ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শহীদুল ইসলাম, শাহরাস্তি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শিরিন আক্তার, কচুয়া উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) রুমন দেসহ স্থানীয় বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তারা।

১৫ জুলাই, ২০১৯।