বিশ্বব্যাপী সেবার পরিধি বাড়াতে কাজ করছে রোটারী ক্লাব

চাঁদপুর রোটারী ক্লাব পরিদর্শনকালে বক্তব্য রাখেন গভর্নর আতাউর রহমান পীর

গত রোববার সন্ধ্যায় চাঁদপুর রোটারী ক্লাব পরিদর্শনকালে বক্তব্য রাখেন রোটারী জেলা গভর্নর রোটারিয়ান প্রিন্সিপাল লে. কর্নেল (অব.) এম আতাউর রহমান পীর। -ইল্শেপাড়

স্টাফ রিপোর্টার
রোটারী জেলা-৩২৮২, বাংলাদেশের ২০১৯-২০ রোটাবর্ষের গভর্নর রোটারিয়ান প্রিন্সিপাল লে. কর্নেল (অব.) এম আতাউর রহমান পীর বলেছেন, বিশ্বজুড়ে সেবার পরিধি বাড়াতে কাজ করছে রোটারী ইন্টারন্যাশনাল। সে হিসেবে চাঁদপুরসহ বাংলাদেশের রোটারিয়ানদের সেবার পরিধি আরো বাড়াতে কাজ করতে হবে। শুধু সেবা দিলেই হবে না, নিজেদের পেশাগত উন্নয়নেও কাজ করতে হবে।
রোটারী গভর্নর আরো বলেন, রোটারী ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ইতোমধ্যে চট্টগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে সেবামূলক অনেক বড়-বড় কাজ হচ্ছে। এর মধ্যে ক্যান্সার ইন্সস্টিটিউটও রয়েছে। চাঁদপুরেও রোটারী ফাউন্ডেশনের সহযোগিতায় প্রকল্প স্থাপনের চেষ্টা করতে হবে। বড়-বড় প্রকল্পে রোটারী ফাউন্ডেশনে সহযোগিতা করে থাকে, তাই চাঁদপুরেও এ ধরনের প্রকল্প গ্রহণ করলে আমি সর্বোচ্চ সহযোগিতা করবো।
গভর্নর রোটারিয়ান প্রিন্সিপাল লে. কর্নেল (অব.) এম আতাউর রহমান পীর গত রোববার সন্ধ্যায় চাঁদপুর রোটারী ক্লাবের অফিসিয়াল ভিজিট করেন। এ উপলক্ষে গত রোববার রাতে চাঁদপুর রোটারী ভবন মিলনায়তনে আয়োজিত সমাবেশে তিনি বলেন, ভালো উদ্যোগে রোটারী সবসময় পাশে থাকে। ভালো কাজের সাথে সবাইকে সহযোগী হতে হবে। সবার একান্ত প্রচেষ্টায় রোটারী সেবা বাড়তে হবে। কিছু অর্জন করতে হলে অবশ্যই কষ্ট করতে হবে। কোনো কিছু প্রাপ্তি করতে হলে টার্গেট নিয়ে কাজ করতে হবে। চাঁদপুর রোটারী ক্লাব সব-সময় কর্মপরিকল্পনা নিয়ে কাজ করে।
তিনি আরো বলেন, কাজ করলে কাজের স্বীকৃতি অবশ্যই আসবে। চাঁদপুর রোটারী ক্লাব তাদের কাজের অনেক স্বীকৃতি পেয়েছে। আগামিতেও তাদের ধারাবাহিকতা বজায় রাখবে বলে আমি আশাবাদী। চাঁদপুর রোটারী ক্লাব জেলায় অনেক ভালো কাজ করছে, যা প্রশংসার দাবিদার। আপনাদের দাতব্য চিকিৎসালয়টি অনেক পুরাতন। দাতব্য চিকিৎসালয়ের কার্যক্রম গতিশীল করতে আমার যা করণীয় তা করবো।
চাঁদপুর রোটারী ক্লাবের সভাপতি রোটারিয়ান শেখ মো. মঞ্জুরুল কাদের সোহেলের সভাপতিত্বে এবং সচিব রোটারিয়ান অ্যাড. শরীফ মাহমুদ ফেরদৌস শাহীনের পরিচালনায় প্রশ্নোত্তর পর্বে বক্তব্য রাখেন চাঁদপুর রোটারী ক্লাবের সাবেক সভাপতি রোটা. কাজী শাহাদাত পিএইচএফ, সাবেক সভাপতি রোটা. অ্যাড. সাইয়েদুল ইসলাম বাবু, সাবেক সচিব রোটা. সাহেদুল হক মোর্শেদ, রোটা. তোফায়েল আহমেদ শেখ, রোটা. উজ্জ্বল হোসেন, রোটা. শাহানা ইসলাম প্রমুখ।
এসময় উপস্থিত ছিলেন রোটারী গভর্নর রোটারিয়ান প্রিন্সিপাল লে. কর্নেল (অব.) এম আতাউর রহমান পীরের সহধর্মিণী ফিরোজা আক্তার, ক্লাবের সাবেক সভাপতি ও জোনাল কো-অর্ডিনেটর রোটা. তমাল কুমার ঘোষ, পিপি আলহাজ রোটা. আবুল কাশেম গাজী, রোটা. নাছির উদ্দিন খান, রোটা. সূর্য কুমার নাথ, রোটা. ডা. পীযূষ কান্তি বড়ুয়া, রোটা. মাহবুবুর রহমান সুমন, রোটা. নাছির আহমেদ চোকদার, রোটা. অ্যাড. মোহাম্মদ ইয়াসিন আরাফাত, রোটা. হাবিবুর রহমান পাটওয়ারীসহ চাঁদপুর রোটারী ক্লাবের সদস্য ও তাদের পরিবারের সদস্যবৃন্দ, চাঁদপুর সেন্ট্রাল ইনার হুইলক্লাব, চাঁদপুর রূপসী রোটার‌্যাক্ট ক্লাব ও চাঁদপুর রোট্যার‌্যাক্ট ক্লাবের সদস্যরা।
এছাড়া রোটারী গভর্নর রোববার ক্লাবের বিভিন্ন প্রকল্প পরিদর্শন, ক্লাব এসেম্বলী, গোপনীয় সভায় অংশ নেন। সন্ধ্যায় গভর্নর একজন দরিদ্র নারীকে সেলাই মেশিন প্রদান ও একজন শিক্ষার্থীকে চাঁদপুর রোটারী ক্লাবের পক্ষ থেকে আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হবে। অনুষ্ঠানের শেষ দিকে গভর্নরসহ অতিথিদের উপহার প্রদান করা হয়।