শাহরাস্তিতে ৭টি আইসোলেশন বেড, হোম কোয়ারেন্টাইনে ৫৭ জন

করোনা সংক্রমণ

নোমান হোসেন আখন্দ
করোনা সংক্রমণ শাহরাস্তি উপজেলার সার্বিক পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। মানুষের জীবনযাত্রার মান স্বাভাবিক নিয়মে চলছে। প্রশাসনের কঠোর নজরদারি ও নির্দেশনায় বিদেশ ফেরত ৫৭ জন (২৩ মার্চ পর্যন্ত) প্রবাসী হোম কোয়ারেন্টাইনে অবস্থান করছেন। গত ১১ মার্চ থেকে শাহরাস্তি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এলাকায় ৭টি আইসোলেশন বেড স্থাপন করা হয়েছে। উপজেলার মেহের ডিগ্রি কলেজ ও সুচীপাড়া ডিগ্রি কলেজে কোয়ারেন্টাইন কেন্দ্র চালু রাখা হয়েছে। আইসোলেশন বেড ও কোয়ারেন্টাইন কেন্দ্রে করোনা সন্দেহভাজন কোন রোগী পাওয়া যায়নি।
এ বিষয়ে শাহরাস্তি উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার-পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. প্রতিক সেন জানান, করোনা পরিস্থিতিতে আমরা সতর্ক অবস্থানে রয়েছি। গত ১১ মার্চ থেকে আইসোলেশন বেড ও ২টি কলেজে কোয়ারেন্টাইন কেন্দ্র স্থাপন করা হয়েছে। বিদেশ ফেরত প্রবাসীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে, তাদের হোম কোয়ারেন্টাইন অনুসরণ করার নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে। স্বাস্থ্য সহকারীদের মাধ্যমে করোণা সচেতনতা বিষয়ক লিপলেট বিতরণ ও গণযোগাযোগ চলমান রয়েছে। জ¦র,সর্দি, কাশি রোগীদের বাড়িতে থেকে চিকিৎসা সেবা নেওয়ার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। সংসদ সদস্য মেজর রফিক প্রতিনিয়তই ফোনে সার্বিক পরিস্থিতি মনিটরিং ও পর্যবেক্ষণ অব্যাহত রাখছেন।
অদ্যাবধি এ উপজেলায় করোনা সন্দেহভাজন কোন রোগী পাওয়া যায়নি। সর্বোপরি শাহরাস্তি উপজেলার সার্বিক পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।