মক্কা-মদিনায় সেলফিতে মত্ত মুসল্লিরা

বিরক্ত কাবার ইমাম

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
বছরের অন্যান্য সময়ের তুলনায় পবিত্র রমজান মাসে সৌদি আরবের মক্কা ও মদিনায় মুসল্লিদের আগমন বেশি ঘটে। সৌদির বিভিন্ন অঞ্চল ছাড়াও বিশ্বের অন্যান্য দেশ থেকেও হাজার হাজার মানুষ ইসলামের পবিত্র স্থানগুলো পরিদর্শনে যান। তবে অনেক মুসল্লি মক্কা-মদিনায় সেলফি তুলে ও ভিডিও করে সময় নষ্ট করেন। এতে বেশ বিরক্ত হয়েছেন কাবা শরিফের ইমাম ও প্রখ্যাত ইসলামি ব্যক্তিত্ব আব্দুরহমান আস সুদাইস।
ইসলামে পবিত্রতম স্থান হলো মক্কার কাবা শরীফ। এরপর রয়েছে মদিনার মসজিদে নববী। যেখানে শুয়ে আছেন মহানবী হযরত মোহাম্মদ (সা.)।
বাইরে থেকে মক্কা ও মদিনায় যেসব মুসল্লি আসেন তারা চান এ মুহূর্তটিকে স্মরণীয় করে রাখতে। এ কারণে অনেকে মোবাইল ফোনে নিজের ছবি তোলেন এবং আশপাশের ভিডিও করে রাখেন।
তবে এবার সেখানে পরিভ্রমণে আসা মুসল্লিরা অনেক বেশি ছবি তোলা ও ভিডিও করায় ব্যস্ত রয়েছেন বলে অবহিত হয়েছেন কাবা শরিফের ইমাম। এতে বেশ বিরক্ত হয়েছেন তিনি।
তিনি মুসল্লিদের ছবি তোলা ও ভিডিও করায় ব্যস্ত না হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন, বলেছেন ‘সময় ও ইসলামের পবিত্রস্থানগুলোকে মূল্য দিন।’
কাবা শরিফের ইমামের পাশাপাশি দুই পবিত্র মসজিদ বিষয়ক জেনারেল প্রেসিডেন্সির প্রেসিডেন্টের দায়িত্বেও রয়েছেন আব্দুর রহমান। এই ইমাম জানিয়েছেন, রমজান মাস উপলক্ষ্যে কাবা ও মসজিদে নববীতে আরও বেশি বেশি ধর্মীয় আলোচনা এবং ধর্ম বিষয়ক সচেতনতা বৃদ্ধিতে কার্যক্রম পরিচালনা করা হবে।
গত ১১ মার্চ সৌদি আরবে পবিত্র রমজান মাস শুরু হয়। এরপর থেকে গত ১৩ দিনে কাবা শরীফের কাছে যাওয়ার সুযোগ পেয়েছেন ৭৫ লাখ মুসল্লি। অপরদিকে একই সময়ে মসজিদে নববীতে যান ১ কোটি মুসল্লি।
মানুষের ভিড় বেশি থাকায় এবারের রমজানে একজন ব্যক্তিকে শুধু একবারই ওমরাহ করার সুযোগ দেওয়া হচ্ছে। এছাড়া ভিড় সামলাতে আরও কিছু ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। সূত্র: গালফ নিউজ।

২৫ মার্চ, ২০২৪।