কঠোর লকডাউন বাস্তবায়নে ব্যবসায়ীদের সাথে জেলা প্রশাসনের জরুরি সভা

করোনার ভয়াবহতার হাত থেকে সবাইকে সুরক্ষার জন্য এ লকডাউন
……..জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ

স্টাফ রিপোর্টার
চাঁদপুরে কঠোর লকডাউন বাস্তবায়নে জেলা প্রশাসনের জরুরি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার (১৩ এপ্রিল) জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ।
তিনি তার বক্তব্যে বলেন, সরকার সামান্য দিনের জন্য কঠোর হয়েছে। তা হয়েছে শুধুমাত্র করোনার ভয়াবহতার হাত থেকে আমাদের সুরক্ষার জন্য। ছোট পরিবহনগুলোতে পণ্য পরিবহন, ঔষধ পরিবহন, রোগী পরিবহন স্টিকার লিখতে হবে। তবে বিনা কারণে এসব গাড়ি রাস্তায় বের হতে পারবে না। আমরা যাচাই করে দেখব পণ্য পরিবহন ও রোগী পরিবহন সঠিক আছে কিনা? করোনা কত ভয়াবহতা রূপ নিয়েছে এক দিনে ৮৩ জনের মৃত্যু। এক সপ্তাহের জন্য এ লকডাউন। এ সময় যদি কোনো পরিবহন রাস্তায় বের হলে আমরা জব্দ করে থানায় নিয়ে যাব। তা আর জব্দ হলে দেয়া হবে না। বিনা কারণে কেউ রাস্তায় বের হতে পারবে না। রাস্তায় থাকবে প্রশাসন আর পুলিশ। আপনারা কী কারণে ঘর থেকে বের হয়েছেন তার প্রমাণ থাকতে হবে।
তিনি আরো বলেন, হোটেল-রেস্তোরাঁ লকডাউনের সময় দুপুর ১২টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত এবং রাত ১২টা থেকে সকাল ৬টা পর্যন্ত দোকান খোলা রাখতে পারবেন। তবে হোটেলে কোনো ক্রেতাকে বসে খাবর দিতে পারবে না। আমরা মনিটরিংয়ে থেকে মোবাইল কোট পরিচালনা করে ব্যবস্থা নেয়া হবে। রমজান মাসে কোনো পণ্যের মূল্য বাড়ানো যাবে না। মার্কেটিং অফিস তা তদারকি করবে। সরকারের নির্দেশিত শর্ত মানতে হবে।
অন্যান্য বক্তারা বলেন, রেলওয়ে হকার্স মার্কেটে সরকারের নির্দেশ মানা হয় না। এ মার্কেট থেকে যারা মিছিল করেছিল তাদের বিরুদ্ধে এখনো ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। তারা জামায়াত-বিএনপির লোক এবং তারা চিহ্নিত। তারাই আরেকটা ইস্যু তৈরি করতে পারে। আমরা এ ৭ দিন যদি লকডাউন মেনে চলতে পারলে উপকৃত হবে সবাই। যদি না মানা হয় তাহলে লকডাউনের সময়সীমা বাড়ানো হবে, তা ভাল হবে না। রোজার মাসে হোটেল-রেস্তোরাঁ বন্ধ রাখে, রোজার পরে তা তো চলে। চাঁদপুর লাল কালির চিহ্ন পরে গেছে, করোনা চাঁদপুরে এতটাই ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে, তা ধরেই নির্মূল হবে না। আমরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে চললে তা’ রোধ করা যাবে। মহামারি দেখা গেলে ঔষধ খেতে হবে। মহামারি নিয়ে রাজনীতি নয়। রাজনীতি রাজনীতির জায়গায়, রাষ্ট্রকে বাঁচতে হবে।
অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ জামানের পরিচালনায় আরো বক্তব্য রাখেন পুলিশ সুপার মো. মিলন মাহমুদ, জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি নাছির উদ্দিন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক আবু নঈম পাটোয়ারী দুলাল, পৌর মেয়র অ্যাড. জিল্লুর রহমান জুয়েল, চাঁদপুর প্রেসক্লাব সভাপতি ইকবাল হোসেন পাটোয়ারী, সাধারণ সম্পাদক রহিম বাদশা, মার্কেটিং কর্মকর্তা রেজাউল করিম, চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সহ-সভাপতি রোটা. তমাল কুমার ঘোষ, পরিচালক রোটা. গোপাল সাহা, চাল ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি পরেশ মালাকাল, কুমিল্লা রোড ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আনোয়ার হোসেন বাবুল, হোটেল রেস্তোরাঁ মালিক সমিতির সভাপতি আব্দুর রহিম, যুগ্ম-সম্পাদক নুরুজ্জামান লালু, সাংগঠনিক সম্পাদক মাসুদুর রহমান, দপ্তর সম্পাদক মজিবুর রহমান আখন্দ, সিএনজি শ্রমিক ইউনিয়ন সভাপতি কাজী শাহরিয়ার ওমর ফারুকসহ আরো অনেকে।

১৪ এপ্রিল, ২০২১।