কাল পবিত্র ঈদুল আজহা

ইলশেপাড় রিপোর্ট
আগামিকাল বুধবার পবিত্র ঈদুল আজহা। ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্য ও উৎসব আমেজের মধ্য দিয়ে বুধবার সারাদেশে পশু কোরবানির মধ্য দিয়ে পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপিত হবে।
হজরত ইব্রাহিম (আ.)-এর আত্মত্যাগ ও অনুপম আদর্শের প্রতীকী নিদর্শন হিসেবে প্রায় সাড়ে ৪ হাজার বছর আগে থেকে কোরবানির এ প্রচলন শুরু। মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামীনের নির্দেশে হযরত ইব্রাহিম (আ.) তাঁর প্রাণপ্রিয় ছেলে হজরত ইসমাইল (আ.)-কে কোরবানি করতে উদ্যত হয়েছিলেন। ওই অনন্য ঘটনার স্মরণেই এ কোরবানির প্রচলন।
মুসলিম সম্প্রদায়ের ধর্মীয় দ্বিতীয় বৃহত্তম এ উৎসব উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশবাসীকে শুভেচ্ছা জানিয়ে পৃথক বাণী দিয়েছেন।
রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ এ উপলক্ষে দেয়া বাণীতে দেশবাসীসহ বিশ্বের সব মুসলমান ভাই-বোনদের আন্তরিক শুভেচ্ছা ও মোবারকবাদ জানিয়েছেন।
তিনি বলেন, কোরবানির শিক্ষা ও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির ঐতিহ্যকে ব্যক্তি ও সমাজ জীবনে সঠিকভাবে কাজে লাগিয়ে জাতীয় উন্নয়ন ত্বরান্বিত করি- এটাই হোক এবারের ঈদের অঙ্গীকার।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাঁর বাণীতে ত্যাগের মহিমায় ভাস্বর পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে দেশবাসী ও বিশ্বের সব মুসলিম জনগোষ্ঠীকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও ঈদ মোবারক জানিয়েছেন।
তিনি বলেন, মহান আল্লাহর উদ্দেশ্যে প্রিয় বস্তুকে উৎসর্গের মাধ্যমে তাঁর সন্তুষ্টি লাভের যে অনুপম দৃষ্টান্ত হযরত ইব্রাহিম (আ.) স্থাপন করে গেছেন, তা বিশ্ববাসীর কাছে চিরকাল অনুকরণীয় ও অনুসরণীয় হয়ে থাকবে।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আসুন আমরা সকলেই পবিত্র ঈদুল আজহার মর্মবাণী অন্তরে ধারণ করে নিজ নিজ অবস্থান থেকে জনকল্যাণমুখী কর্মকাণ্ডে অংশ নিয়ে বিভেদ-বৈষম্যহীন সুখী, সমৃদ্ধি বাংলাদেশ গড়ে তুলি। রাব্বুল আলামীন আমাদের সহায় হোন।’
ঈদুল আজহা উপলক্ষে কেন্দ্রিয় কারাগারসহ দেশের সব কারাগার, সরকারি হাসপাতাল, ভবঘুরে কল্যাণ কেন্দ্র, বৃদ্ধাশ্রম, শিশুসদন, ছোটমনি নিবাস, সামাজিক প্রতিবন্ধী কেন্দ্র, সরকারি আশ্রয় কেন্দ্র, সেফ হোম্স, দুস্থ কল্যাণ কেন্দ্র এবং শিশু ও মাতৃসদনে উন্নতমানের খাবার পরিবেশন করা হবে।
হযরত ইব্রাহিম (আ.) নিজ পুত্রকে কোরবানি দেয়ার পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়ার পর আল্লাহপাকের নির্দেশে তাঁর জীবদ্দশায় প্রতি বছরই পশু কোরবানির মাধ্যমে সৃষ্টিকর্তার আনুগত্যের আদর্শ প্রতিষ্ঠা করেন।
মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.) ও এ আদর্শ অনুসরণ ও বহাল রাখতে আদিষ্ট হন। তিনিও তাঁর জীবদ্দশায় প্রতিবছরই কোরবানি করেছেন এবং তাঁর উম্মতদের জন্য এ আদর্শ ও প্রথা অনুসরণের নির্দেশ দিয়ে গেছেন।
এ আদর্শ অনুসরণের জন্য গোটা মুসলিম জাহানের মতো বাংলাদেশেও ঈদ উদযাপনের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। এ উপলক্ষে দেশের ধর্মপ্রাণ মুসলমানগণ আল্লাহর সন্তুষ্টি লাভের উদ্দেশে পশু কোরবানি দেয়ার প্রস্তুতি নিয়েছেন।
কোরবানির পশু কেনার জন্য গত কয়েক দিন যাবৎ চাঁদপুর বাবস্ট্যান্ড ও বাগাদী চৌরাস্তা পশুর হাটসহ বিভিন্ন স্থানে অস্থায়ী পশু হাটগুলোতে ক্রেতাদের ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। আপনজন ও আত্মীয়-স্বজনদের সঙ্গে ঈদের খুশি ভাগাভাগি করার জন্য রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন শহরে বসবাসকারীরা চাঁদপুরের দিকে ছুটে আসছেন।
এদিকে যথাযথ ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্য পরিবেশ ও ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনাসহ দেশজুড়ে চলছে উৎসবের আমেজ। তবে গত বছর থেকে পৃথিবীজুড়ে মহামারি হিসেবে দেখা দেয়া করোনাভাইরাসের কারণে এ বছরও ঈদের নানা আনুষ্ঠানিকতা ও আনন্দে খুবই ভাটা পড়েছে। নিরাপদ দূরত্বে থেকে নামাজ আদায়সহ ঘরে বসেই ঈদের আনন্দ উপভোগ করতে হবে মুসলিম বিশ্বকে।
অপরদিকে করোনাভাইরাসের কারণে লকডাউন ও কর্মহীন হয়ে পড়া মানুষজনদের মাঝে নেই ঈদ আনন্দ। তারপরও প্রায় প্রতিটি পশুর হাটে গরু-ছাগলসহ কোরবানির সামগ্রী বেচা-কেনায় মানুষজন ছুটে যাচ্ছেন। যদিও নানা স্থানে স্বাস্থ্যবিধি না মানার অভিযোগ পাওয়া গেছে। তারপরও ঈদে মুসলমানদের প্রত্যাশা- মহান আল্লাহতায়ালা যেনো করোনাভাইরাস নামের এই দুর্যোগ থেকে যেনো তাদের রক্ষা করেন।
ঈদ উপলক্ষে বাংলাদেশ রেলওয়ে, বিআরটিসি, বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন সংস্থা (বিআইডব্লিউটিসি), বাংলাদেশ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষ এবং অন্যান্য বেসরকারি সংস্থা যাত্রীদের যাতায়াতের জন্য বিশেষ ব্যবস্থাগ্রহণ করেছে।
এদিকে পবিত্র উৎসব উপলক্ষে দৈনিক পত্রিকাগুলো বিশেষ ক্রোড়পত্র প্রকাশ করবে। বাংলাদেশ বেতার, বাংলাদেশ টেলিভিশন ও বেসরকারি টিভি চ্যানেল এবং রেডিও বিনোদনমূলক বিশেষ অনুষ্ঠানমালা সম্প্রচারের উদ্যোগ গ্রহণ করেছে।
যথাযোগ্য মর্যাদা ও আনন্দ উৎসবের মধ্য দিয়ে ঈদ উদ্যাপনের লক্ষ্যে জাতীয় পর্যায়ের সাথে সমন্বয় রেখে স্থানীয় পর্যায়ে জেলা প্রশাসন, উপজেলা প্রশাসন, সিটি করপোরেশন ও পৌরসভাগুলো দেশব্যাপী ঈদ উদ্যাপনের প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে।

২০ জুলাই, ২০২১।