চাঁদপুরে ইউপি চেয়ারম্যান, সচিব ও সদস্যদের প্রশিক্ষণ

ইউনিয়ন পরিষদের কর নিয়মিত আদায় করতে হবে
……….জেলা প্রশাসক কামরুল হাসান

সজীব খান
জেলা প্রশাসক কামরুল ইসলাম বলেছেন, পরিষদের সক্ষমতা বৃদ্ধি ও নিজস্ব আয় বৃদ্ধি করতে হবে। ইউনিয়ন পরিষদের কর নিয়মিত আদায় করতে হবে। হোল্ডিং ট্যাক্স আদায় করলে ইউনিয়ন পরিষদের উন্নয়ন করা সম্ভব হবে। এখন মানুষ বিশ টাকা দিয়ে হাফ লিটার পানি কিনে খায়। এখন আর সেই যুগ নেই, দেশের উন্নয়নের জন্য সকলের সচেতন হতে হবে।
রোববার (৭ আগস্ট) সকাল ১০টায় চাঁদপুর সার্কিট হাউজে এলজিএসপি-৩ এর আওতায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার, ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, ইউপি সচিব ও সদস্যদের অংশগ্রহণে ইউনিয়ন পরিষদ উন্নয়ন সহায়তা ব্যবহার নির্দেশিকা ২০২১ এর উপর প্রশিক্ষণ কর্মসূচির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।
তিনি আরো বলেন, মানুষকে সচেতন করতে হবে। গ্রামপুলিশ দিয়ে হোল্ডিং ট্যাক্স যারা নিয়মিত দেয় না তাদের নোটিশ দিয়ে আদায়ের কাজ করতে হবে। আইন অনুযায়ী কর আদায় করতে হবে। ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানদের স্থানীয় সরকার আইন বিধি ২০০৯ ভালোভাবে পড়তে হবে। তাহলে চেয়ারম্যানরা তাদের দায়িত্ব ও কর্তব্য জানতে পারবেন। ইউনিয়ন পরিষদের গ্রাম্য আদালতের আইনের বিষয়ে জানলে পরিষদের কার্যক্রম বেগবান হবে।
জেলা প্রশাসক বলেন, পরিষদের তহবিল থেকে ছোট-ছোট কালভার্ট তৈরি করতে হবে, হাট-বাজারের উন্নয়নে ভূমিকা রাখতে হবে। শহরের সুবিধাগুলো এখন গ্রামে পাচ্ছে। ইউনিয়ন পরিষদের কমিউনিটি ক্লিনিকগুলো সাধারণ মানুষকে প্রাথমিক চিকিৎসা সঠিকভাবে দেয় কিনা তা তদারকি করতে হবে। পরিষদে সরকারের বিধিমালাগুলো সঠিকভাবে বাস্তবায়ন করতে হবে। ইউনিয়ন পরিষদে জন্ম নিবন্ধনগুলো সঠিকভাবে করতে হবে। জন্ম নিবন্ধনগুলো এখন সবস্থানে প্রয়োজন হচ্ছে। জন্ম নিবন্ধনের বিষয়ে চেয়ারম্যানদের দায়িত্ব নিতে হবে।
তিনি আরো বলেন, সম্প্রতি জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধি হয়েছে। এর প্রভাব সব ক্ষেত্রেই পড়বে। কোন কারণে তেলের দাম বৃদ্ধি হয়েছে, জনসাধারণকে তা বুঝাতে হবে। ইউক্রেন-রাশিয়ার যুদ্ধের প্রভাবে দেশের জ্বালানী তেলসহ বিভিন্ন জিনিসপত্রের দাম বৃদ্ধি পাচ্ছে। এসবের ক্রাইসিসও এক সময় কেটে যাবে। কোন দুষ্কৃতকারী যাতে এসব বিষয় নিয়ে দেশে উস্কানি দিতে না পারে সে বিষয়ে নজর রাখতে হবে। বাল্যবিয়ের বিষয়ে সবাইকে সচেতন হতে হবে। সব স্থানেই আইনের সঠিক প্রয়োগ করতে হবে।
তিনি বলেন, ইউনিয়ন পরিষদের তহবিল ব্যবহারবিধি ও নিয়ম জানতে হবে। ইউনিয়ন পরিষদের সব বিষয়ে চেয়ারম্যান, সচিব ও মেম্বারদের জ্ঞান অর্জন করতে হবে। রাষ্ট্রের স্বার্থে সবাইকে কাজ করতে হবে। প্রশিক্ষণের মাধ্যমে সবাইকে দক্ষ করা হচ্ছে, জনগণের দোরগোড়ায় সরকারের সেবা পৌঁছে দিতে হবে।
চাঁদপুর স্থানীয় সরকার বিভাগের ভারপ্রাপ্ত উপ-পরিচালক ইমতিয়াজ হোসেনের সভাপতিত্বে এবং ইএলজির ডিএফ নূরুদ্দীন মামুনের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন এলজিএসপি-৩ প্রকল্পের উপ-প্রকল্প পরিচালক মো. জহিরুল ইসলাম।
অনুষ্ঠানে সঞ্চালনায় করেন এলজিএসপি-৩ এর ডিএফ রিয়াজ উদ্দিন সরকার। এসময় জেলার সব উপজেলার নির্বাহী অফিসার, চেয়ারম্যান ও ইউপি সচিবরা প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণ করেন।

০৮ আগস্ট, ২০২২।