পাসপোর্ট অফিসে দালাল পেলেই সাজা

চাঁদপুর জেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভায় জেলা প্রশাসক

স্টাফ রিপোর্টার
চাঁদপুর জেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার (১২ সেপ্টেম্বর) বেলা ১১টায় জেলা প্রশাসক সম্মেলন কক্ষে সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ।
তিনি তার বক্তব্যে বলেন, চাঁদপুরে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি তুলনামূলকভাবে ভালো আছে। জনপ্রতিনিধিরা যদি প্রশাসনের কাজে এগিয়ে আসে, তখন কাজ করতে সহজ হয়। সবাই একযোগে কাজ করলে দেশে অন্যায়-অবিচার থাকবে না। কিছুদিন আগে শ্রমিকদের যে বিক্ষোভ হয়েছে, সেটাতে মনে হচ্ছে যেন ষড়যন্ত্র চলছে, এ ব্যাপারে সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে। খুতবার সময় যেন তালেবান বিষয়ে মসজিদে কোনরকম কথা না বলা হয়।
তিনি আরো বলেন, আজ অনেকদিন পরে স্কুল-কলেজগুলো খোলা হয়েছে। আমি নিজে বিভিন্ন স্কুল-কলেজে গিয়ে দেখেছি। প্রতিটি শিক্ষার্থীকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে পাঠদান কক্ষে ঢুকানো হচ্ছে। অনেকদিন পর বিদ্যালয়গুলোতে এসে শিক্ষার্থীদের মাঝে আনন্দিত ও উৎফুল্লতা লক্ষ্য করা হেছে। আশা করি ঠিকমত স্বাস্থ্যবিধি মেনে চললে আমরা পুরো সময়েই বিদ্যালয়গুলো খোলা রাখতে পারবো।
তিনি পাসপোর্ট অফিসের প্রসঙ্গে বলেন, পাসপোর্ট অফিসের দালালদের তালিকা করে টানিয়ে দিতে হবে। তাদের পাসপোর্ট অফিসে দেখলেই ভ্রাম্যমাণ আদালত যেন সাজা প্রদান করতে পারে। পাসপোর্ট অফিসের কেউ যদি অপরাধমূলক কাজে লিপ্ত থাকে, তাদেরও খুঁজে বের করতে হবে।
জেলা প্রশাসক আরো বলেন, মাদকের বিরুদ্ধে জোরদার পদক্ষেপ চালিয়ে যেতে হবে। মাদক মামলার আসামিরা যেন বার-বার জামিন না পায় সেক্ষেত্রে আইনজীবীদের বিশেষ ভূমিকা রাখতে হবে। এতো সহজেই যেন তারা জামিনে এসে আবার মাদকদ্রব্য বিক্রি না করতে পারে।
জেলা প্রশাসক অবৈধভাবে বালু উত্তোলন প্রসঙ্গে বলেন, চাঁদপুরের কোন বালুমহলকে ইজারা দেয়া হয় নাই। প্রতিনিয়ত আমাদের কর্মকর্তাবৃন্দ ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে যেখানেই ড্রেজিং হচ্ছে সেখানেই অভিযান চালিয়ে সাজা প্রদান করছেন।
সভায় চাঁদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ ও প্রশাসন) সুদীপ্ত রায় তাঁর বক্তব্যে বলেন, আফগানিস্তানের ঘটনার পর থেকে গোয়েন্দা নজরদারি অব্যাহত রয়েছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স গ্রহণ করেছেন। মাদকের ব্যাপরে চাঁদপুরের গডফাদারদের তালিকা তৈরী হচ্ছে। মাদক ব্যবসার যে লাভ সেই লোভের কারণে মাদক ব্যবসায়ীরা বার-বার জামিনে এসে পুনরায় সেই ব্যবসায় লিপ্ত হচ্ছে। মাদককে প্রতিহত করতে হলে প্রতিটি সেক্টরকেই এগিয়ে আসতে হবে।
তিনি আরো বলেন, আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি চাঁদপুরে অনেক ভালো। প্রতিটি থানাকে প্রত্যেকটি বিট ভাগ করে দেয়া হয়েছে। আমাদের কর্মকর্তারা সবসময় জনপ্রতিনিধিদের সাথে আলোচনা করে প্রতিটি অপরাধমূলক কাজের নজরদারি আছে। সমাজের সবাইকেই সচেতন হতে হবে।
জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নাসির উদ্দিন আহমেদ বলেন, রাজনীতিক ব্যক্তিত্ব এবং আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সহযোগিতা ছাড়া মাদক চলতে পারে না। এ ক্ষেত্রে আমাদেরও ব্যর্থতা রয়েছে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীরও ব্যর্থতা রয়েছে। মাককেন সাথে জড়িতদের কোন ছাড় দিবেন না। সে আমাদের দলের হলেও। চাঁদপুরে রাজনীতিক হানাহানি নেই। কিছু বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়া। এটিকে আরো এগিয়ে নিতে হবে।
জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা আবু নঈম পাটোয়ারী দুলাল বলেন, নদী থেকে অপরিকল্পিতভাবে বালু উত্তোলন চলছে। অবাধে বালু উত্তেলনের ফলে চাঁদপুর সদর উপজেলার নদী ভাঙনে ইব্রাহিমপুর ইউনিয়ন ও রাজরাজেশ্বর ইউনিয়ন বিলীন হবার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। হাইকোর্টে একটা রিটের মধ্যদিয়ে এভাবে অবাধে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। এতে রাষ্ট্রীয় সম্পদ নষ্ট করা হচ্ছে। এদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে।
সভার শুরুতে বিগত মাসের কার্যবিবরণী সিদ্ধান্ত ও অগ্রগতি তুলেন ধরেন অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ নাসির উদ্দিন সরোয়ার।
সভায় বক্তব্য রাখেন নৌ-পুলিশ সুপার মো. বেলায়েত, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. নাছির উদ্দিন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক আবু নঈম পাটোয়ারী দুলাল, সিভিল সার্জন ডা. মো. শাখাওয়াত উল্লাহ, প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকবাল হোসেন পাটওয়ারী, স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত নারী মুক্তিযোদ্ধা ডা. সৈয়দা বদরুন নাহার চৌধুরী, জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাড. আহসান হাবিব, পিপি অ্যাড. রনজিত রায় চৌধুরী, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক একেএম দিদারুল আলম, চাঁদপুর আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের সহকারী পরিচালক শরীফুল ইসলাম প্রমুখ।
সভায় হাজীগঞ্জ পৌরসভার মেয়র মাহবুবুল আলম লিপন, ফরিদগঞ্জ পৌরসভার মেয়র আবুল খায়ের পাটোয়ারীসহ জেলার সরকারি বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
১৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১।