পুরাণবাজার ও নতুন বাজার পুলিশ ফাঁড়ির পৃথক অভিযানে ২ হাজার কেজি জাটকা জব্দ

স্টাফ রিপোর্টার
চাঁদপুর পুরাণবাজার ও নতুন বাজার পুলিশ ফাঁড়ির পৃথক অভিযানে ২ হাজার কেজি জাটকাসহ ২টি পিকআপ জব্দ করা হয়েছে। এসময় জাটকা পাচারের সময় এক ব্যবসায়ী ও পিকআপ হেলপারকে আটক করা হয়। জব্দকৃত জাটকাগুলো এতিমখানা, স্থানীয় অসহায় ও দুঃস্থদের মাঝে বিতরণ করা হয়।
জানা যায়, গত সোমবার রাতে নতুন বাজার পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মো. কামরুজ্জামানের নেতৃত্বে শহরের কয়লাঘাট এলাকায় অভিযান চালিয়ে (ঢাকা মেট্রো-ন-১১-৯০৩২) নম্বরের পিকআপ ভ্যানসহ আবুল কাশেম (৫৫) কে আটক করা হয়। আটক আবুল কাশেম শহরের যমুনা রোডের সামছুল হক পাঠানের ছেলে।
জব্দকৃত জাটকা মঙ্গলবার (৬ এপ্রিল) সকাল ১০টায় নতুন বাজার পুলিশ ফাঁড়িতে সদর উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মাহবুব রশিদের উপস্থিতিতে স্থানীয় এতিমখানা এবং হতদরিদ্রদের মাঝে বিতরণ করা হয়।
অপরদিকে আখনের হাট থেকে স্থানীয় রাসেল ও সজিব পিকআপ ভ্যান (ঢাকা মেট্রো-ন-১৮-৩৫০০) ১২শ’ কেজি জাটকা যাত্রাবাড়িতে দিলু মিয়ার কাছে পাচারকালে সকাল ৭টায় ফরাক্কাবাদ থেকে পুরাণবাজার ফাঁড়ির ইনচার্জ মো. জাহাঙ্গীর আলম জব্দ করে। এসময় চালক পালিয়ে গেলেও হেলপার নাইম হাওলাদার (২০) কে আটক করে। আটক নাইম হাওলাদার বরগুনা আমতলী এলাকার নাছির হাওলাদারের ছেলে। জব্দকৃত জাটকাগুলো হতদরিদ্রদের মাঝে বিতরণ করা হয়।
পুরাণবাজার ফাঁড়ির ইনচার্জ মো. জাহাঙ্গীর আলম ও নতুন বাজার পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মো. কামরুজ্জামান জানান, অভয়াশ্রম চলাকালীন সময়ে আইন অমান্য করে জেলেরা জাটকা নিধন করছে। সেই জাটকাগুলো রাতের আঁধারে পিকআপ ভ্যানে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে বিক্রি করা হয়। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে খবর পেয়ে জাটকা মাছসহ একজন পাচারকারি ও পিকআপের হেলপারকে আটক করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে মৎস্য আইনে মামলা দায়ের করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।
০৭ এপ্রিল, ২০২১।