মতলব দক্ষিণে গলায় ফাঁস দিয়ে যুবকের আত্মহত্যা

মৃত্যু নিয়ে এলাকায় নানা গুঞ্জন

স্টাফ রিপোর্টার
মতলব দক্ষিণে গলায় ফাঁস দিয়ে মো. মাসুম হোসেন নামে এক যুবক আত্মহত্যা করেছে। গত ১৩ জুন দিবাগত রাতে উপজেলার নারায়ণপুর গ্রামের (পোদ্দারের পুকুরপাড়) করিম মিয়ার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। তবে এ মৃত্যু নিয়ে এলাকায় নানা গুঞ্জন শুনা যাচ্ছে। কেউ বলছে প্রেমে ব্যর্থ হয়ে আত্মহত্যা করেছে। আবার কেউ বলছে এটি একটি রহস্যজনক মৃত্যু।
এদিকে খবর পেয়ে গতকাল সোমবার সকাল ১১টায় মতলব দক্ষিণ থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চাঁদপুর মর্গে প্রেরণ করেছে।
পুলিশ ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, উপজেলার নারায়ণপুর গ্রামের আব্দুল করিম মিয়ার ছেলে মো. মাসুম হোসেন (২২) গত ১৩ জুন রাতে পরিবারের লোকজনের সাথে অভিমান করে নিজ ঘরের সিলিং ফ্যানের সাথে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে। পরে রাতেই স্থানীয় ইউপি সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম ফাঁস দেওয়া অবস্থায় মাসুমের লাশ নিচে নামিয়ে ফেলে। এ নিয়ে এলাকায় নানা গুঞ্জনের সৃষ্টি হয়।
স্থানীয় এলাকাবাসী জানান, ইউপি সদস্য একজন জনপ্রতিনিধি হয়ে কিভাবে আত্মহত্যাকারীর লাশ পুলিশের অনুমতি ছাড়া নিচে নামায়। তাছাড়া ওই ছেলে আত্মহত্যা করার মত ছেলে না।
স্থানীয় এলাকাবাসী আরও জানান, মাসুমের সাথে পাশের গ্রামের একটি মেয়ের দীর্ঘদিন প্রেমের সম্পর্ক ছিল। কিন্তু ওই মেয়ের অন্যত্র বিয়ে হয়ে যায়। তারপরও মাসুম ওই পুরনো প্রেমিকার সাথে গোপনে সম্পর্ক চালিয়ে যায়। এ নিয়ে পরিবারের মধ্যে ঝামেলা চলছিলো।
মতলব দক্ষিণ থানার এসআই ফিরোজ আহাম্মদ মোল্লা জানান, ঘটনাস্থলে গিয়ে ফাঁস দেওয়া ব্যক্তির লাশ ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া যায়নি। স্থানীয় ইউপি সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিমসহ স্থানীয় লোকজন লাশ ঝুলন্ত অবস্থা থেকে নিচে নামিয়ে ফেলে। পরে আমরা লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চাঁদপুর মর্গে প্রেরণ করি।
এ বিষয়ে ইউপি সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম জানান, আমি ঝুলন্ত অবস্থা থেকে লাশ নিচে নামাইনি। তবে আমি উপস্থিত ছিলাম।
মতলব দক্ষিণ থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ মহিউদ্দিন মিয়া জানান, লাশ উদ্ধার করে চাঁদপুর মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এ বিষয়ে একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

১৫ জুন, ২০২১।