মাস্ক, সাবান ও লিফলেট নিয়ে প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলে

কৈশোরবান্ধব সদর উপজেলা প্রকল্প



প্রেস বিজ্ঞপ্তি
মাস্ক, সাবান ও লিফলেট নিয়ে প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলে ছুটে যাচ্ছেন কৈশোরবান্ধব চাঁদপুর সদর উপজেলা প্রকল্পটির স্বপ্নদ্রষ্টা ডা. সাজেদা বেগম পলিন। তিনি গতকাল বুধবার থেকে এ কার্যক্রম শুরু করেছেন।
গতকাল সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত একটানা তিনি বাগাদী ও বালিয়া ইউনিয়নের প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলে গিয়ে যে সব পরিবার আর্থিকভাবে কিছুটা অস্বচ্ছল ও অসহায়, সে সব পরিবারের কিশোর-কিশোরীদের মাঝে মাস্ক, সাবান ও লিফলেট বিতরণ করেন। তিনি এ দু’টি ইউনিয়নের শতাধিক কিশোর-কিশোরীর মাঝে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে বেঁচে থাকার জন্যে এসব উপকরণ বিতরণ করেন।
এ সময় তিনি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে বেঁচে থাকার জন্যে করণীয় কী এ সংক্রান্ত লিফলেটও বিতরণ করেন এবং কিশোর-কিশোরীসহ অভিভাবকদের এ বিষয়ে সচেতন হওয়ার উপর গুরুত্ব দেন। তিনি মাস্ক কখন কখন ব্যবহার করা প্রয়োজন, সঠিকভাবে মাস্ক ব্যবহারের পদ্ধতি এবং সাবান দিয়ে হাত ধোয়ার নিয়ম প্রত্যক্ষভাবে শিখিয়ে দেন।
চাঁদপুর সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সাজেদা বেগম পলিনের এ কার্যক্রমের সময় তাঁর সাথে উপস্থিত ছিলেন বালিয়া ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রের সহকারী সার্জন ডা. নূর হোসেন বান্না, স্বাস্থ্য পরিদর্শক মনির হোসেন তালুকদার ও স্বাস্থ্যকর্মী শহিদুল ইসলাম।
ডা. সাজেদা বেগম জানান, এভাবে তিনি চাঁদপুর সদরের ১৪টি ইউনিয়নে দরিদ্র পরিবারের কিশোর-কিশোরীদের মাঝে ওইসব উপকরণ বিতরণ করবেন এবং গ্রাম পর্যায়ে মানুষকে করোনার উপর সচেতন করে তুলবেন। করোনা ভাইরাসের আগ্রাসন থেকে রক্ষার জন্যে তাঁর এই প্রয়াস বলে তিনি জানান।