হাজীগঞ্জে উন্মুক্ত ও প্রাতিষ্ঠানিক জলাশয়ে ২৮৬ কেজি মাছের পোনা অবমুক্তকরণ

মোহাম্মদ হাবীব উল্যাহ্
হাজীগঞ্জে উন্মুক্ত ও প্রাতিষ্ঠানিক জলাশয়ে ২৮৬ কেজি রুই জাতীয় মাছের পোনা অবমুক্ত করা হয়েছে। মঙ্গলবার (৮ সেপ্টেম্বর) সকালে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বৈশাখী বড়ুয়া প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে এই মাছের পোনা অবমুক্ত করেন। চলতি অর্থ বছরের রাজস্ব খাতের অর্থায়নে এবং উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তার কার্যালয়ের ব্যবস্থাপনায় উপজেলার ৫টি জলাশয়ে ২৮৬ কেজি মাছের পোনা অবমুক্ত করা হয়।
এ সময় উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) কানিজ ফাতেমা, উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ড. জুলফিকার আলী, উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মো. গোলাম মোস্তফা, থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আলমগীর হোসেন রনিসহ অন্যান্য সরকারি কর্মকর্তা এবং স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।
মৎস্য কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, প্রতি বছরের মতো ২০২০-২১ অর্থ বছরেও রাজস্ব খাতের অর্থায়নে ২৮৬ কেজি রুই জাতীয় মাছের পোনা অবমুক্ত করা হয়েছে। এর মধ্যে রুই মাছের পোনা শতকরা ৪০ ভাগ, কাতলা ৩০ ভাগ, মৃগেল ২০ ভাগ, কালিবাউস ৫ ভাগ ও ঘনিয়া ৫ ভাগ।
এর মধ্যে ডাকাতিয়া নদীর হাজীগঞ্জ অংশে ১১৬ কেজি, উপজেলা পরিষদ পুকুরে ৫০ কেজি, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স পুকুরে ৪০ কেজি, হাজীগঞ্জ থানা পুকুরে ৫০ কেজি ও উপজেলা ফায়ার সার্ভিস স্টেশন পুকুরে ৩০ কেজি রুই জাতীয় মাছের পোনা অবমুক্ত করা হয়।
এ ব্যাপারে উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. শামসুল আলম পাটওয়ারী জানান, মাছ উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে সরকার প্রতি বছরের মতো এ বছরেও প্রাতিষ্ঠানিক এবং উন্মুক্ত জলাশয়ে মাছের পোনা অবমুক্তকরণের কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। তিনি বলেন, আশা করি এর মাধ্যমে হাজীগঞ্জে মাছের উৎপাদন অনেকাংশে বৃদ্ধি পাবে এবং স্থানীয় সুফলভোগীদের প্রোটিনের চাহিদা পূরণের পাশাপাশি জাতীয় আয়ে অবদান রাখবে।
৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০।