হাজীগঞ্জে করোনা আক্রান্ত শিক্ষকের কাছে চিরকুট ও খাদ্যসামগ্রী

মনোবল হারাবেন না, আমরা আপনার পাশে আছি
—ইউএনও বৈশাখী বড়ুয়া

মোহাম্মদ হাবীব উল্যাহ্
নিজের যত্ন নিন, মনোবল হারাবেন না। আমরা সবাই আপনার পাশে আছি। লেখা চিরকুটের মাধ্যমে করোনা আক্রান্ত মাদরাসা শিক্ষককে মনোবল ও সাহস যুগিয়েছেন, হাজীগঞ্জের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বৈশাখী বড়ুয়া। গত বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ‘আমরা করবো জয়’ শিরোনামে ছোট্ট একটি চিরকুটসহ এক সপ্তাহের খাদ্য ও ঈদ সামগ্রী পাঠানো হয় ওই শিক্ষকের কাছে।
বিষয়টি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক ইউএনও, হাজীগঞ্জ, চাঁদপুর আইডিতে একটি স্ট্যাটাস দেন ইউএনও বৈশাখী বড়ুয়া। তিনি স্ট্যাটাসে লেখেন গত ২০.৫.২০২০ তারিখে হাজীগঞ্জ পৌরসভার মকিমাবাদ এলাকায় করোনা শনাক্ত ব্যক্তির নিকট ভালোবাসা এবং সাহস মিশ্রিত খাদ্যসামগ্রী সংবলিত উপহার প্রেরণ করা হয়। ভালো থাকুক সকলে, বেঁচে থাকুক মানবতা…
এর আগে গত বুধবার (২০ মে) বিকালে প্রকাশিত রিপোর্টে আবু বকর সিদ্দিক (৫০) নামের শিক্ষকের করোনা পজেটিভ আসে। এর পরেই এ দিন রাতে তার বসবাসকৃত বাড়িটি (ভবন) লকডাউন করে প্রশাসন ও থানা পুলিশ। তিনি পৌরসভাধীন ৫নং ওয়ার্ড মকিমাবাদ গ্রামের হক ম্যানশনের ৫ম তলায় ভাড়া বাসায় থাকেন।
করোনা আক্রান্ত আবু বকর সিদ্দিক রাজধানীর একটি মাদরাসায় শিক্ষকতা করেন বলে জানা গেছে। তিনি উপজেলার বড়কুল পশ্চিম ইউনিয়নের বাসিন্দা। সম্প্রতি তিনি ঢাকা হতে হাজীগঞ্জের ভাড়া বাসায় উঠেন। এরপর তিনি অসুস্থতা বোধ করলে গত রোববার তিনি করোনা পরীক্ষায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নমুনা জমা দেন।
বুধবার প্রকাশিত নমুনা পরীক্ষায় করোনা পজেটিভ আসায় তিনি সেলফ কোয়ারেন্টাইনে থেকে চিকিৎসা নিবেন। পরবর্তীতে তার শারিরিক অবস্থা অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে। উল্লেখ্য, এ নিয়ে হাজীগঞ্জে ছয় জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে একজন সুস্থ হয়েছেন এবং একজন নারী মারা গেছেন। করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুর পর নমুনা পরীক্ষায় নিহত নারীর করোনা পজেটিভ আসে।

২৩ মে, ২০২০।