হাজীগঞ্জে চালের আড়তে ৯৫ হাজার টাকা জরিমানা

নির্ধারিত মূল্যে চাল বিক্রি না করাসহ বিভিন্ন অপরাধে

মোহাম্মদ হাবীব উল্যাহ্
হাজীগঞ্জে বেশি দামে চাল বিক্রি এবং চালের দোকানে রাসায়নিক সার বিক্রির অপরাধে ৪ চালের আড়তের স্বত্বাধিকারীকে মোট ৯৫ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বৈশাখী বড়ুয়া। গতকাল রোববার বিকালে হাজীগঞ্জ বাজারে এই ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।
নির্ধারিত মূল্যে চাল বিক্রি না করা, চাল ও সার এক সাথে রাখা এবং প্রতিষ্ঠানে সঠিক মূল্য তালিকা না থাকার অভিযোগে পৃথক পৃথক অপরাধে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন-২০০৯ এর বিভিন্ন ধারা অনুযায়ী চারজন চালের আড়তদারকে পৃথকভাবে মোট ৯৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। তারা হলেন, আড়তদার মিজানুর রহমান, ইয়াছিন আরাফাত, জামাল উদ্দিন ও মামুন হোসেন।
ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা গেছে, নির্ধারিত মূল্যে চাল বিক্রি না করা এবং সঠিক মূল্য তালিকা না থাকার অপরাধে মেসার্স নিউ আরাফাত ট্রেডার্সের স্বত্বাধিকারী মিজানুর রহমানকে নগদ ৩০ হাজার টাকা, নূর ট্রেডার্সের স্বত্বাধিকারী মো. ইয়াছিন আরাফাতকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বৈশাখী বড়ুয়া।
এছাড়া সঠিক মূল্য তালিকা না থাকা এবং চালের সাথে সার বিক্রি করার অপরাধে মেসার্স জামাল ব্রাদার্সের স্বত্বাধিকারী মো. জামাল উদ্দিনকে ৩০ হাজার টাকা ও ফজলুল হক ট্রেডার্সের স্বত্বাধিকারী মো. মামুন হোসেনকে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এ সময় পেঁয়াজের আড়তদারদের নির্ধারিত মূল্যে পেঁয়াজ বিক্রি করার নির্দেশনা প্রদান করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।
এ ব্যাপারে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বৈশাখী বড়ুয়া বলেন, নিত্য প্রয়োজনী দ্রব্যের মূল্য নিয়ন্ত্রণ ও সচেতনার সৃষ্টির লক্ষ্যে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয় এবং অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে তিনি জানান।