সাভার থেকে উদ্ধার হাজীগঞ্জের স্কুল শিক্ষার্থী কাশপি, গ্রেফতার শাওন

মোহাম্মদ হাবীব উল্যাহ্
অপহরণের ৪ দিন পর উদ্ধার করা হয়েছে অষ্টম শ্রেণি পড়–য়া হাজীগঞ্জের দেশগাঁও জয়নাল আবেদীন উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সামিয়া ইসলাম কাশপিকে (১৪)। মঙ্গলবার (২১ জুন) দুপুরে রাজধানীর সাভার থানার হেমায়েতপুর এলাকার একটি বাসা থেকে অপহরণকারী মো. শাওন হোসনকে (২৫) গ্রেফতার ও অপহৃত কাশপিকে উদ্ধার করে ফরিদগঞ্জ থানা পুলিশ। এদিন বিকালে তাকে সাভার থেকে ফরিদগঞ্জ থানায় নিয়ে আসা হয়।
এর আগে গত শুক্রবার (১৭ জুন) নিজ বাড়ি ফরিদগঞ্জ উপজেলার বালিমূড়া গ্রাম থেকে প্রাইভেট পড়তে যাওয়ার পথে সামিয়া ইসলাম কাশপিকে একই এলাকার শাওন হোসেন নামের এক যুবক অপহরণ করে নিয়ে যায়। এমন অভিযোগে তার মা শাহিন বেগম এদিন রাতেই ফরিদগঞ্জ থানায় একটি অপরহণ মামলা দায়ের করেন। মামলায় অপহরণকারী শাওন ও সহযোগী বাহারসহ ৩/৪ জনকে অজ্ঞাত আসামি করা হয়।
শিক্ষার্থী সামিয়া ইসলাম কাশপি ফরিদগঞ্জ উপজেলার গুপ্টি পূর্ব ইউনিয়নের বালিমূড়া গ্রামের বৈদ্য বাড়ির আব্দুল কাদেরের মেয়ে। আসামি শাওন হোসেন (২৬) একই গ্রামের মুচি বাড়ির আব্দুল হালিম খানের ছেলে এবং অপর আসামি একই এলাকার সফি উল্যাহর ছেলে। তাদের আইনি প্রক্রিয়া শেষে আদালতে প্রেরণ করা হবে বলে সংবাদকর্মীদের জানান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (হাজীগঞ্জ ও ফরিদগঞ্জ সার্কেল) মো. সোহেল মাহমুদ।
এদিকে সামিফ ইসলাম কাশপিকে উদ্ধারের ঘটনায় প্রেস ব্রিফিং করে সংবাদকর্মীদের বিস্তারিত জানান মো. সোহেল মাহমুদ। তিনি বলেন, মামলার পর থেকে ফরিদগঞ্জ থানা পুলিশের কয়েকটি টিম কাশপিকে উদ্ধার ও আসামি শাওন হোসেন গ্রেফতারে কাজ করে। এরপর তথ্য ও প্রযুক্তির ব্যবহারের মাধ্যমে তাদের অবস্থান নিশ্চিতপূর্বক ঢাকার সাভার থানা পুলিশের সহযোগিতায় কাশপিকে উদ্ধার ও শাওনকে গ্রেফতার করা হয়।
উল্লেখ্য, মামলা সূত্রে জানা গেছে, স্কুলে আসা যাওয়ার পথে সামিয়া ইসলাম কাশপিকে প্রায়সময় উত্ত্যক্ত করতো শাওন হোসেন নামের ওই যুবক। এ নিয়ে এলাকায় কয়েকবার সালিসি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। ওইসব বৈঠকে উত্ত্যক্ত না করার প্রতিশ্রুতি দেয় শাওন। অথচ গত শুক্রবার সকালে প্রাইভেট পড়তে যাওয়ার সময় জোরপূর্বক সামিয়াকে তুলে নিয়ে যায় শাওন। এরপর থেকে তার খোঁজ মেলেনি এবং কোন ধরনেই যোগাযোগও নেই।
পরবর্তীতে ওই দিন (শুক্রবার) রাতেই সামিয়া ইসলাম কাশপির মা শাহিন বেগম বাদী হয়ে ফরিদগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। অপহরণের তিন দিন পার হওয়ার পর কাশপি উদ্ধার না হওয়ার প্রতিবাদে গত সোমবার সকালে মানববন্ধন করে তার সহপাঠীসহ ওই বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। মানববন্ধনে অপহরণকারী শাওনকে গ্রেফতার এবং দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. মনির হোসেনসহ অন্যরা।

২২ জুন, ২০২২।