হাজীগঞ্জ বাজারের ৫টি খাবার হোটেলে ৭৫ হাজার টাকার জরিমানা

ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান

মোহাম্মদ হাবীব উল্যাহ্
তেলাপোকারা মিতালি গড়েছে রান্নাঘরের দেয়ালে। এদিকে-ওদিকে ছুটে বেড়াচ্ছে, উৎসাহ যাত্রা যেন খাবার ঘিরে। মুরগির চামড়া, নাড়িভুড়ি, ড্রেন সব যেন একই পথের পথিক। তাছাড়া ময়দার কাই আর খাবারের ঝুটা মিলেমিশে একাকার। ফ্রিজে কাঁচা মাংস আর রান্না করা মাংসের যুগলবন্দী। বাটা মশলা, দই, ফ্রাই, ছানা, তরকারী সবাই যেন বাসা বেধেছে একসাথে।
এইসব চিত্র আমাদের বিলাসবহুল জমকালো রেস্টুরেন্টের রান্নাঘরের। আমরা যেখানে খেতে গিয়ে তৃপ্তির ঢেকুর ফেলছি। তার পেছনেই আছে এই অন্ধকারের গল্প, অব্যবস্থাপনার চিত্র। বিষয়টি হাজীগঞ্জের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ রাশেদুল ইসলাম উপজেলা প্রশাসনের ব্যবহৃত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফেসবুকের এক পোস্টে তুলে ধরেন।
ওই পোস্টে বলা হয়, এসব অবস্থাপনার কারণে হাজীগঞ্জ বাজারে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে প্রিন্স হোটেল ২০ হাজার, আল মদিনা হোটেল ১৫ হাজার, নিউ তৃপ্তি হোটেল ১৫ হাজার, গাউছিয়া হাইওয়ে হোটেল ১০ হাজার ও ফুড লাভারসকে ১৫ হাজার টাকাসহ মোট ৭৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। বৃহস্পতিবার (৩০ জুন) বিকালে হাজীগঞ্জ বাজারের বিভিন্ন হোটেল ও রেস্টুরেন্টে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন তিনি।
হাজীগঞ্জ থানা পুলিশের সহযোগিতায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনাকালে উপজেলা স্যানেটারী পরিদর্শক মো. সামছুল ইসলাম রমিজ, হাজীগঞ্জ থানার এসআই মো. আব্দুল আজিজসহ অন্যান্য কর্মকর্তা, জাতীয় ও স্থানীয় পত্রিকার প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

০১ জুলাই, ২০২২।