চাঁদপুরে রিকশা চলাচল বন্ধ, প্রয়োজনে গ্রেফতার

স্টাফ রিপোর্টার
চাঁদপুর জেলায় করোনা পরিস্থিতি অবনতি হওয়ায় সোমবার (২৬ জুলাই) থেকে রিকশা চলাচলও বন্ধ রাখার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। নির্দেশনা অমান্য করলে জরিমানার পাশাপাশি প্রয়োজনে গ্রেফতারও করা হবে। রোববার (২৫ জুলাই) চাঁদপুর জেলা উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির ভার্চুয়াল সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।
সভার সভাপতি জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ বলেন, জেলায় করোনা পরিস্থিতি এখনো নিয়ন্ত্রণে আসছে না। বরং দিন দিন এর প্রকোপ বেড়েই চলেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ৫ জন করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। আক্রান্ত হচ্ছেন অনেকে।
এরপরও জেলার বেশিরভাগ মানুষই অসচেতন। আর এই অসচেতনতা এখন বেশিরভাগই পরিলক্ষিত হচ্ছে শিক্ষিত সচেতনদের মধ্যেই। কোন কারণ ছাড়াই সচেতনরাই ঘর থেকে বেরিয়ে পড়ছেন। তিনি বলেন, রিক্সা চলার সুযোগে একটি রিক্সায় ৩/৪ জন বসছেন। এই অবস্থা কোনভাবেই চলতে দেয়া যায় না।
ডিসি বলেন, সভায় অংশ নেয়া কমিটির সদস্যদের সর্বসম্মতিক্রমে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে- এখন থেকে জেলা শহর পৌর এলাকা এবং অন্যান্য পৌরসভা এলাকাসহ অতিরিক্ত লোকসমাগম এলাকাগুলোতে রিক্সা চলাচলও বন্ধ করা হলো। সোমবার থেকে এটি আরো কঠোর করা হবে। শুধুমাত্র রোগী আনা নেয়া ছাড়া কোন রিক্সা সড়কে চলাচল করতে পারবে না। আর উপযুক্ত কোন কারণ ছাড়া ঘর থেকে বের হবেন সেজন্য জরিমানাই নয়, গ্রেফতার হবেন। সেজন্য আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী এবং নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের নির্দেশ প্রদান করছি।
জেলখানার জেলারের উদ্দেশে বলেন, গ্রেফতার করাদের আলাদা সেলে রাখবেন যাতে এদের দ্বারা অন্যরা সংক্রমণ না হয়। তিনি বলেন, এই পরিস্থিতির আলোকে এই কঠোর সিদ্ধান্ত ছাড়া কোন উপায় নেই। আমি আশা করি, আজ থেকে এই বিব্রতকর পরিস্থিতির শিকার না হতে এবং করোনা আক্রান্ত থেকে নিজেকে রক্ষা, পরিবারকে রক্ষা এবং অন্যকে বাঁচতে ঘরে অবস্থান করুন। আর আপনারা যারা কর্মহীন হবেন, যদি খাদ্য সংকটে পড়েন আপনার খাদ্য সহায়তা পেতে ৩৩৩ নাম্বারে ডায়াল করবেন, খাদ্য পৌঁছে দেয়া হবে। এছাড়া প্রত্যেক উপজেলা নির্বাহী, পৌর মেয়রসহ আমাদের যারা জনপ্রতিনিধি আছেন তারা কন্ট্রোল রুমের ব্যবস্থা করবেন। জনপ্রতিনিধিরাও যোগাযোগ রক্ষা করে চলবেন।
তিনি বলেন, নতুন করে যে বরাদ্দ, তার ছাড় ২/১ দিনের মধ্যেই আপনারা পেয়ে যাবেন। যার যার বরাদ্দ, সেটি দিয়ে দেয়া হবে। আপনারা সুষ্ঠু বন্টন করবেন।
সভায় বক্তব্য রাখেন চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র মো. জিল্লুর রহমান জুয়েল, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপারেশন ও অপরাধ) সুদীপ্ত রায়, চাঁদপুর ২৫০ শয্যা সরকারি জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. হাবিব উল করিম, সিভিল সার্জন ডা. মো. সাখাওয়াত উল্যাহ, এনএসআই’র উপ-পরিচালক শেখ আরমান আহমেদ, জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি নাছির উদ্দিন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ডার এমএ ওয়াদুদ, ফরিদগঞ্জ পৌর মেয়র মুক্তিযোদ্ধা আবুল খায়ের পাটওয়ারী, মতলব উত্তর উপজলা চেয়ারম্যান আ. কুদ্দুস, মতলব পৌর মেয়র আওলাদ হোসেন লিটন, পিডিবি’র নির্বাহী প্রকৌশলী মিজানুর রহমান, জেলা তথ্য অফিসার মনির হোসেন প্রমুখ।

২৫ জুলাই, ২০২১।