ফরিদগঞ্জে মেধাবী ছাত্র ইমরান হোসেন পাবেলের ইন্তেকাল

নারায়ন রবিদাস
ফরিদগঞ্জ উপজেলার সংবাদপত্র এজেন্ট ও ম্যাগাজিন হাউজের স্বত্বাধিকারী মাও. তাজুল ইসলামের বড় ছেলে, মেধাবী শিক্ষার্থী ইমরান হোসেন পাবেল ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়াইন্না ইলাহি রাজেউন)। গত এক সপ্তাহ ধরে পাবেল জ¦রে আক্রান্ত ছিল। সোমবার (১৪ সেপ্টেম্বর) সকালে ঢাকা মিডফোর্ড হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তকে মৃত ঘোষণা করে। সে জগন্নাথ বিশ^বিদ্যালয়ে ব্যবসায়ী শাখার অনার্স ৩য় বর্ষের ছাত্র ছিল।
দুই ভাই, এক বোনের মধ্যে পাবেল ছিল সবার বড়। পাবেল ফরিদগঞ্জ এআর উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি ও গৃদকালিন্দিয়া হাজেরা হাসমত ডিগ্রি কলেজ থেকে এইচএসসিতে জিপিএ-৫ পেয়ে কৃতিত্বের সাথে উত্তীর্ণ হওয়ার পর ঢাকা জগন্নাথ বিশ^বিদ্যালয়ে ভর্তি হয়।
ছোটবেলা থেকেই পাভেলের হার্টে মৃদু ছোট ছিদ্র ছিলো বলে জানায় তার বাবা ফরিদগঞ্জ ম্যাগাজিন হাউজের স্বত্বাধিকারী তাজুল ইসলাম। গতকাল তার মরদেহ নিয়ে আসা হয় ফরিদগঞ্জ পৌরসভা সদরস্থ বাসায়। বিকালে ওয়াপদা মাঠে প্রথম জানাযার পর উপজেলার রূপসা দক্ষিণ ইউনিয়নের চরমান্দারী গ্রামে দ্বিতীয় জানাযা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়। সদা-সর্বদা হাস্যোজ্জল পাবেলের মৃত্যুতে তার পরিবারের আহাজারিতে উপস্থিত হাজারো মানুষের চোখের জল ধরে রাখা কষ্ট সাধ্য হয়ে উঠেছিলো।
এদিকে ইমরান হোসেন পাবেলের মৃত্যুতে এআর সরকারি মডেল হাইস্কুলের শিক্ষকমন্ডলী, ফরিদগঞ্জ পৌরসভার মেয়র, দৈনিক যায়যায়দিন ফ্রেন্ডস ফোরাম, দৈনিক ইলশেপাড় পরিবার, ফরিদগঞ্জ প্রেসক্লাব নেতৃবৃন্দ ও সাপ্তাহিক আলোকিত ফরিদগঞ্জ পরিবারসহ বিভিন্ন সামাজিক ও ক্রীড়া সংগঠন গভীর শোক প্রকাশ করেছে।
১৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০।