মিষ্টি কুমড়া চাষে সুদিনের স্বপ্ন দেখছেন চাষিরা

মতলব উত্তর ব্যুরো
মতলব উত্তর উপজেলার চরাঞ্চলসহ বিভিন্ন এলাকায় এবার মিষ্টি কুমড়ার ব্যাপক চাষ হয়েছে, ফলনও হয়েছে বাম্পার। মিষ্টি কুমড়ার ফলন ভালো হওয়ায় চাষিদের মুখে হাসি ফুটেছে।
পরিবেশবান্ধব কৌশলের মাধ্যমে নিরাপদ ফসল উৎপাদন প্রকল্পের আওতায় জৈব কৃষি ও জৈবিক বালাই ব্যবস্থাপনা প্রদর্শনীর মাধ্যমে চাষিদের বিষমুক্ত সবজি চাষে উদ্বুদ্ধকরণে কাজ করছে উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ দপ্তর।
সরেজমিনে দেখা গেছে, কম খরচে বেশি লাভ হওয়ায় দিন-দিন বাড়ছে মিষ্টি কুমড়ার আবাদ। ফলন ভালো হওয়ায় এবার উপজেলাতে মিষ্টি কুমড়ার চাষ করে সুদিনের স্বপ্ন দেখছেন চাষিরা।
কৃষকদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, এক বিঘা জমিতে মিষ্টি কুমড়া চাষে সব মিলে খরচ হয় ৯ থেকে ১০ হাজার টাকা। ভালো ফলন হলে এক বিঘা জমির উৎপাদিত মিষ্টি কুমড়া বিক্রি হবে ২৫-৩০ হাজার টাকা। কুমড়ার বীজ জমিতে বপনের ৮৫ থেকে ৯০ দিনের মধ্যেই কুমড়া বিক্রি করা সম্ভব বলে জানান চাষিরা।
দুর্গাপুর ইউনিয়নের হরিণা এলাকার মো. শাকিল হোসেন জানান, এবার মিষ্টি কুমড়ার বীজ বপন করেছি। গাছ ভালো হয়েছে ও ফুল আসছে। আবহাওয়া যদি অনুকূলে থাকে আসা করছি আগাীি ১ মাসের মধ্যে বাজারে বিক্রি করতে পারবো।
বোরোচরের চাষি ইব্রাহিম গাজী বলেন, ২ বিঘা জমিতে মিষ্টি কুমড়া চাষ করেছি। প্রতি বিঘায় ব্যয় হয়েছে ১০ হাজার টাকা। ফলন ভালো হলে এক বিঘায় ২৫ হাজার টাকার মিষ্টি কুমড়া বিক্রি করতে পারবো।
মতলব উত্তর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোহাম্মদ সালাউদ্দিন জানান, উপজেলার বিভিন্ন স্থানে দেখেছি মিষ্টি কুমড়ার ফলন ভালো হয়েছে। চাষিরা তাদের কাক্ষ্মিত আশা পূরণ করতে পারবেন।

১৩ জানুয়ারি, ২০২২।