মুজিববর্ষে যুবলীগ কোনো বিদেশি গাছের চারা রোপণ করবে না

মতলব উত্তরে বৃক্ষরোপণকালে মাইনুল হোসেন খান নিখিল

মনিরুল ইসলাম মনির
মুজিববর্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আহ্বান ‘তিনটি করে গাছ লাগান, পরিবেশ বাচান’ এই শ্লোগানকে সামনে রেখে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির অংশ হিসেবে শনিবার (২৪ অক্টোবর) নিশ্চিন্তপুর উচ্চ বিদ্যালয়, নিশ্চিন্তপুর ডিগ্রি কলেজ মাঠে বনজ, ফলজ ও ঔষুধি গাছের চারা রোপণ করেন বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ মো. মাইনুল হোসেন খান নিখিল।
বৃক্ষরোপণ কর্মসূচিতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হোসেন খান নিখিল।
এসময় যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হোসেন খান নিখিল বলেন, করোনাকালে মুজিব বর্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে ও যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশের নেতৃত্বে বৃক্ষ রোপণ কর্মসূচি অব্যাহত রেখেছে যুবলীগ। সেই ধারাবাহিকতায় আজকে বৃক্ষ রোপণ কর্মসূচি পালন করেছে। নেত্রীর নির্দেশনা মোতাবেক যুবলীগ সারাদেশে ৫০ লাখ গাছ লাগাবে। আষাঢ় মাসের শুরু থেকেই আমরা এ কর্মসূচি পালন করে আসছি বলেও জানান যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক।
নিখিল বলেন, মুজিববর্ষের এক কোটি গাছের চারা ছাড়াও চলতি বৃক্ষরোপণ অভিযানকালে প্রতিটি সংসদীয় আসনে পাঁচ হাজার করে মোট ১৫ লক্ষ বনজ, ফলজ ও ঔষধি গাছের চারা বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে বিতরণ করা হবে।
তিনি বলেন, বন বিভাগের নিজস্ব ব্যবস্থাপনাতেও বনায়ন কার্যক্রমের আওতায় চলতি অর্থবছরে সাত কোটি বৃক্ষ রোপণ করা হবে। পরবর্তীতে রোপণ করা এসব গাছের চারা যথাযথভাবে রক্ষণাবেক্ষণ করার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থাও গ্রহণ করা হবে।
কোনো বিদেশি গাছের চারা রোপণ করা হবে না উল্লেখ করে তিনি বলেন, চলতি বছরেই বৃক্ষরোপণ কর্মসূচী সম্পন্ন করার জন্য সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দিয়েছে বন মন্ত্রণালয়।
যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ মো. মাইনুল হোসেন খান নিখিল বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবনে তেঁতুল, ছাতিয়ান ও চালতা প্রজাতির গাছের চারা রোপণের মাধ্যমে এই কর্মসূচীর উদ্বোধন করেন। এর পরপরই প্রতিটি জেলা ও উপজেলায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে অন্ততপক্ষে একটি করে ফলজ, বনজ ও ঔষুধি গাছের চারা রোপণের মাধ্যমে কর্মসূচি শুরু করার জন্য প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
বৃক্ষরোপণ কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন যুবলীগের বিভিন্ন স্তরের নেতৃবৃন্দ।
২৫ অক্টোবর, ২০২০।