হাজীগঞ্জে চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রীর মরদেহ উদ্ধার

মোহাম্মদ হাবীব উল্যাহ্
হাজীগঞ্জে বাথরুমে গোসল করতে গিয়ে নিহত চতুর্থ শ্রেণিতে পড়ুয়া সুমাইয়া আক্তার নামের আট বছর বয়সি এক শিশুর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গত বৃহস্পতিবার (৩ জুন) রাতে উপজেলার হাটিলা পশ্চিম ইউনিয়নের সুহিলপুর গ্রামের নিশ্চিতপুর করিম উদ্দিন হাজি বাড়িতে এই ঘটনা ঘটে। নিহত শিশু সুহিলপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী।
এই ঘটনায় নিহত শিশু সুমাইয়া আক্তারের পরিবারের কোন অভিযোগ না থাকায় এবং পরিবারের লিখিত আবেদনের ভিত্তিতে ময়নাতদন্ত ছাড়া মরদেহ দাফন করার অনুমতি দেয়া হয়েছে। তবে এই ঘটনায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে জানান হাজীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ হারুনুর রশিদ।
জানা গেছে, ঘটনার দিন বিকালে গোসল করার উদ্দেশে বাথরুমে প্রবেশ করে ভিতর থেকে দরজা লক করে দেয় সুমাইয়া আক্তার। এরপর ২/৩ ঘণ্টা পার হলেও সে বাথরুম থেকে বের হয়নি। পরবর্তীতে সুমাইয়ার মা সালমা আক্তারের সহযোগিতায় তার দাদা আবদুল মমিন বাথরুমের দরজা ভেঙে ভিতরে প্রবেশ করেন।
ওই সময় সুমাইয়ার লাশ বাথরুমের মেঝেতে পড়ে থাকতে দেখে তাদের চিৎকারে বাড়ির লোকজন ও স্থানীয়রা ছুটে আসেন। খবর পেয়ে হাজীগঞ্জ থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে থানা হেফাজতে নিয়ে যায়। পরে পারিবারিক আবেদনে ময়নাতদন্ত ছাড়াই তার লাশ হস্তান্তর করা হয়।

০৫ জুন, ২০২১।