মতলব উত্তরে আ.লীগ ও সুধী সমাজের সমন্বয়ে ইফতার ও দোয়া

বিএনপি-জামায়াত দেশে নৈরাজ্য করার চেষ্টা করছে
…… মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীরবিক্রম

মতলব উত্তর ব্যুরো
আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীরবিক্রম বলেছেন, বিশ্ব অবাক হয়ে বাংলাদেশের উন্নয়ন দেখছে। দেশের উন্নয়নে অবদান রাখতে হলে ক্ষমতাসীন দলকে সংগঠন হিসেবেও শক্তিশালী হতে হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন আওয়ামী লীগ সংগঠন হিসেবে ভবিষ্যতে আরো শক্তিশালী হবে।
তিনি আরো বলেছেন, দেশের বড় ব্যবসায়ীদের বেশিরভাগ বিএনপি সমর্থক। তারা বিএনপির ষড়যন্ত্রের সঙ্গে যুক্ত হয়ে পণ্য মজুদ করে দাম বাড়ানোর অপচেষ্টা চালাচ্ছে। কিন্তু সরকারের আন্তরিকতা দিয়ে আমরা তা মোকাবেলা করে যাচ্ছি।
তিনি আরো বলেন, গত ১৩ বছরে পুরো বাংলাদেশ বদলে গেছে। প্রতিটি মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন হয়েছে। ১৩ বছরের আগের তুলনায় বাংলাদেশের প্রতিটি মানুষ ভালো আছে। কিন্তু এই উন্নয়ন অগ্রগতি যাদের পছন্দ হয় না, সেই বিএনপি ও তাদের দোসরেরা দেশে-বিদেশে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত। তারা দেশের মানুষের মধ্যে নানা ধরনের বিভ্রান্তি ছড়ানোর অপচেষ্টা চালাচ্ছে।
বুধবার (২৭ এপ্রিল) বিকেলে মতলব উত্তর উপজেলার মোহনপুরে মায়া চৌধুরীর বাড়িতে মতলব উত্তরে আওয়ামী লীগ ও সুধী সমাজের সমন্বয়ে ইফতার ও দোয়া মাহফিলপূর্বক সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীর বিক্রম বলেন, আগুন সন্ত্রাস আর মানুষ হত্যার রাজনীতি করে বিএনপি এখন আন্দোলন করার সক্ষমতা হারিয়ে হারিয়ে ফেলেছে অনেক আগেই। ঈদের পরে বিএনপির আন্দোলন। এগুলো ফাঁকা আওয়াজ। এই ফাঁকা আওয়াজে কোনো লাভ হবে না। অতীতে হয়নি, ভবিষ্যতেও হবো না। বিএনপি মিথ্যার রাজনীতি করে, মিথ্যার রাজনীতি শেষ। নেতৃত্ব সংকটে ভুগতে থাকা বিএনপি’র সামনে এখন শুধুই মরিচিকা। বিএনপি নেতারা এখন দিনের আলোতেই অমাবশ্যার অন্ধকার দেখে। কার্যত বিএনপি একটি শক্তিহীন ও অন্তঃসারশূন্য রাজনৈতিক দল।
তিনি আরও বলেন, বিএনপি মিথ্যার আশ্রয় নিয়ে মানুষকে বিভ্রান্ত করার একটি ষড়যন্ত্র। মিথ্যা আর ষড়যন্ত্রে যাদের জন্ম, তারা মিথ্যা কথা আর ষড়যন্ত্র করবেই। কাজেই পবিত্র মাহে রমজান মাস, ধৈর্য্যর মাস। এই রমজান মাসে যারা মিথ্যা কথা বলে তাদের কিন্তু আল্লাহর দরবারে মাফ নেই। আমি বিএনপিকে অনুরোধ করবো রমজান মাসে মিথ্যা থেকে বিরত থাকার জন্য।
বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের ডাক দেওয়া প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর অন্যতম সদস্য মায়া চৌধুরী বলেন, গত নির্বাচনের আগেও বিএনপির ঐক্যের চেহারা দেশের মানুষ দেখেছে। ঐক্যের নামে বিএনপি ও তার শরীকদের মধ্যে লেজেগোবরে অবস্থা দেশের মানুষের স্মৃতি থেকে এখনও মুছে যাবার কথা নয়। একঘরে হয়ে বিএনপি আসলে এখন হতাশাগ্রস্তÍ।
আগামি জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশনের অধীনে অনুষ্ঠিত হবে জানিয়ে মায়া চৌধুরী বলেন, এ নিয়ে সংশয়ের কোন অবকাশ নেই। বরং বিএনপি নির্বাচন দাবি করলেও নির্বাচনের মাঠ থেকে শেষ পর্যন্ত সরে যায় কিনা তা নিয়ে দেশের মানুষ শঙ্কায় আছেন। কারণ বিএনপি নির্বাচন ও জনগণকে ভয় পায় তাই তারা গণরায়ের প্রতি শ্রদ্ধাশীল নয়।
ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী পরিষদের সদস্য সাজেদুল হোসেন চৌধুরী দীপুর আয়োজনে, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ অ্যাড. রুহুল আমিনের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা এমএ কুদ্দুসের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নাসির উদ্দীন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক আবু নাঈম পাটোয়ারী দুলাল, চাঁদপুর জেলা পরিষদের নবনিযুক্ত প্রশাসক আলহাজ ওসমান গনি পাটোয়ারী, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার এমএ ওয়াদুদ, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সদস্য সাজেদুল হোসেন চৌধুরী দীপু, মতলব দক্ষিণ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি লিয়াকত আলী প্রধান, সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বিএইচ কবির আহমেদ, জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক মিজানুর রহমান কালু ভূঁইয়া প্রমুখ।

২৮ এপ্রিল, ২০২২।