আমিরাবাদ ভূমি অফিসের বেহাল দশা

জরাজীর্ণ ও ঝুঁকিতে চলছে কার্যক্রম

মতলব উত্তর ব্যুরো
মতলব উত্তর উপজেলাধীন আমিরাবাদ ইউনিয়ন ভূমি অফিসের জরাজীর্ণ ভবনে চলছে দাপ্তরিক কার্যক্রম। পুরো ভবনের চারপাশে দেয়ালে ফাটল দেখা দিয়েছে। সংস্কারের অভাবে জনগুরুত্বপূর্ণ ভূমি অফিসটি জরাজীর্ণ হয়ে পড়েছে। ইউনিয়ন ভূমি অফিসের জরাজীর্ণ ভবনে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কর্মকর্তা-কর্মচারীরা কার্যক্রম চালিয়ে আসলেও ভবনটি সংস্কারের কোনো উদ্যোগ নেই।
গত মঙ্গলবার সকালে জরাজীর্ণ ভবনটি পরিদর্শন করেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. হেদায়েত উল্ল্যাহ।
সরেজমিন পরিদর্শনে দেখা গেছে, পুরানো টিনশেড ভবনের চারদিক থেকে পলেস্তারা খসে খসে পড়ছে কর্মকর্তা-কর্মচারী ও জায়গা-জমি সংক্রান্ত কাজে আসা সেবাপ্রার্থীদের মাথার উপর। কর্মকর্তা-কর্মচারীরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে জরাজীর্ণ অফিসে বসে কাজ করে যাচ্ছেন। যে কোনো মুহূর্তে দুর্ঘটনার আশঙ্কা করছেন অফিসে কর্মরত লোকজন ও সেবাপ্রার্থীরা।
জানা গেছে, ১৯৫৪ সালে আমিরাবাদ ইউনিয়ন ভূমি অফিসের টিনশেড ভবন নির্মিত হয়। উপজেলার ৩টি ইউনিয়ন যেমন ফরাজীকান্দি, জহিরাবাদ, এখলাছপুর ইউনিয়নের ভূমি সেবা দিয়ে যাচ্ছে এ ভূমি অফিসটি।
সেবাপ্রার্থীরা বলছেন- আমিরাবাদ ইউনিয়ন ভূমি অফিসটি দীর্ঘদিনেও সংস্কার হচ্ছে না। দ্রুততম সময়ে জরাজীর্ণ এই ভবনটি সংস্কার কিংবা নতুন ভবন নির্মাণ হলে জনসাধারণের ভূমি সেবা প্রদানে একধাপ এগিয়ে যাবে বলে মনে করেন তারা।
আমিরাবাদ ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা মো. আনিছুর রহমান মুন্সি বলেন, দীর্ঘদিন সংস্কার না করায় জরাজীর্ণ টিনসেড ঘরটির বেড়া ও ছাউনি নষ্ট হয়ে গেছে। অল্প বৃষ্টিতে ঘরের ভিতর পানি ঢুকে ব্যবহার অনুপযোগী হয়ে পড়ে। তিনি আরো বলেন, টিনসেড বাড়িটি দ্রুত সংস্কার না করা হলে যে কোনো সময় টিন সেড ঘরটি ভেঙে পড়ে দুর্ঘটনার আশঙ্কা রয়েছে।
এ ব্যাপারে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. হেদায়েত উল্ল্যাহ বলেন, আমিরাবাদ ইউনিয়ন ভূমি অফিসটি অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে। যেকোন সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনা সাপেক্ষে দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

৩০ জুন, ২০২২।