কচুয়ায় ইউনিয়ন পরিষদ ভাঙচুরের অভিযোগে আটক ৩

আহসান হাবীব সুমন
হেফাজত ইসলামের নেতা মামুনুল হককে গ্রেফতার করায় কচুয়ায় তার অনুসারীরা গ্রেফতারের প্রতিবাদ জানিয়ে বিক্ষোভ মিছিলে প্রতিবাদকারীরা কচুয়া উপজেলার উত্তর কচুয়া ইউনিয়ন পরিষদে হামলা ও ভাঙচুর করেছে। এ ঘটনায় কচুয়া থানা পুলিশ ৩ জনকে আটক করেছে। আটকরা হচ্ছে- উজানী গ্রামের আতিকুর রহামন, খিড্ডা গ্রামের আরিফ ও দারচর গ্রামের মাসনুন।
গত রোববার ইফতারের পর খিড্ডা জামে মসজিদ থেকে হেফাজত ইসলামের নেতা মামুনুল হককে গ্রেফতারের প্রতিবাদে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের হয়ে পথিমধ্যে তেতৈয়ায় উত্তর কচুয়া ইউনিয়ন পরিষদে সামনে এসে বিক্ষোভ মিছিলে অংশগ্রহকারীরা পরিষদে হামলা ও ভাঙচুর করে। পরে নাহার মোড়ে এসে মিলিত হয়ে সেখানেও আওয়ামী লীগের বিভিন্ন নেতাকর্মীর পোস্টার-ফেস্টুন ভাংচুর করে।
উত্তর কচুয়া ইউনিয়ন পরিষদে হামলার ঘটনায় ইউপি সচিব মফিজুল ইসলাম বাদী হয়ে ৫০/৭০ জনকে অজ্ঞাত করে মামলা দায়ের করেন। এদিকে ঘটনার পরদিন উত্তর কচুয়া ইউনিয়ন পরিষদে হামলার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন কচুয়া উপজেলা পরিষদের সাময়িক বরাখাস্তকৃত চেয়ারম্যান শাহজাহান শিশির।
এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাাদক সোহরাব হোসেন চৌধুরী সোহাগ, ইউপি চেয়ারম্যান কাজী জহিরুল ইসলাম জাহাঙ্গীর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি কাজী জহিরুল ইসলাম টগর, উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সহ-সভাপতি ও কাউন্সিলর কামাল হোসেন অন্তর, সাধারণ সম্পাদক শাহ জালাল প্রধান জালাল, পৌর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক কাউন্সিলর মো. শরিফ আহমেদ, সাংগঠনিক সম্পাদক নজরুল ইসলাম, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এসএম জাকির হোসেন সবুজ, ইউনিয়ন যুবলীগের আহ্বায়ক সাইফুল ইসলাম, যুগ্ম আহ্বায়ক সোহেল মিয়াজীসহ সহযোগী সংগঠনের বিভিন্ন নেতৃবৃন্দ।

২০ এপ্রিল, ২০২১।