চাঁদপুর জেলা বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশ

নূরে আলম খান
চাঁদপুরে কেন্দ্রিয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে ঢাকা-১৮ এবং সিরাজগঞ্জ-১ আসনের অনুষ্ঠিত উপ-নির্বাচনের ফলাফল বাতিল, বিএনপির নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের ও গ্রেপ্তার, দ্রব্যমূল্য উর্ধ্বগতির প্রতিবাদে এবং নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে জাতীয় সংসদ নির্বাচনের দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার (১৫ নভেম্বর) বিকাল ৪টায় বিএনপির দলীয় কার্যালয়ে বিক্ষোভ সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন জেলা বিএনপির যুগ্ম-আহ্বায়ক অ্যাড. সেলিম উল্যাহ সলিম।
জেলা বিএনপির যুগ্ম-আহ্বায়ক মুনির চৌধুরীর পরিচালনায় বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপির যুগ্ম-আহ্বায়ক মাহাবুব আনোয়ার বাবলু, অ্যাড. হারুনুর রশীদ, সদর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. জাহাঙ্গীর হোসেন খান, সিনিয়র সহ-সভাপতি অ্যাড. জাকির হোসেন ফয়সাল, জেলা বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক হাজী মোশারফ হোসাইন, জেলা যুবদলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মানিকুর রহমান মানিক, সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. নূরুল আমিন খান আকাশ, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক হযরত আলী ঢালী, জেলা শ্রমিক দলের সভাপতি নজরুল ইসলাম বাদল, জেলা মৎস্য জীবী দলের সভাপিত মোস্তফা কামাল, জেলা যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ বাহার, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি ঈমান হোসেন গাজী, সাধারন সম্পাদক ঈসমাইল হোসেন পাটওয়ারী প্রমুখ। কোরআন তেলোয়াত করেরওলামা দলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাও. জসিম উদ্দিন।
এসময় বক্তারা বলেন, আন্দোলনের মধ্যমে তত্ত্বাবধায়কের দাবি আদায় করে শেখ হাসিনাকে উদ্খাত করবো। আজকে এদেশে দুর্বিক্ষ চলছে। সাধারণ আলু সাধারণ মানুষের ক্রয় ক্ষমতার বাইরে। শেখ হাসিনা নিজে বলেন জনগণের ভোট চুরি করে ক্ষমতা আসতে চান না। ওনার এমন বক্তব্যে মানুষ হাসে। ফেসবুকে ছাত্রলীগ কর্মী ভোট দিতে পারেনি, সে ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। ঢাকায় নিজেরা বাসে আগুন আওয়ামী লীগ দিয়েছে, তা প্রমাণ হয়েছে। তারা বিএনপিকে বেকায়দায় ফেলতে অরজকতা সৃষ্টি করছে। সতর্ক থাকতে হবে।
বক্তারা বলেন, কোন স্বৈরাচারী গণতান্ত্রিকভাবে বিদায় নেয়নি। স্বৈরাচারীকে বিদায় করতে স্বৈরাচারীকায়দায় বিদায় করতে হবে। রাজপথের আন্দোলনে মাধ্যমে শেখ হাসিনাকে গদি নামাতে হবে। শেখ হাসিনা আপনার বাবাও এদেশের মানুষের কাছে জনপ্রিয় ব্যক্তি ছিলেন। তার কথায় মানুষ ঝাপিয়ে পড়েছেন, কিন্তু তার মৃত্যুর পর ইন্নালিল্লাহে পড়ার লোকও ছিলো না। তা থেকে আপনার শিক্ষা নেওয়া উচিত।
এসময় আরো উপস্থিতি ছিলেন জেলা বিএনপির যুগ্ম-আহ্বায়ক খলিলুর রহমান গাজী, সদর উপজেলা বিএনপির সভাপতি শাহাজালাল মিশন, কেন্দ্রিয় স্বেচ্ছাসেবক দলের সদস্য মীর আনোয়ার হোসেন বাচ্চু, পৌর বিএনপির সহ-সাধারণ সম্পাদক দ্বীন মোহাম্মদ জিল্লু, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাংগঠনিক সম্পাদক ছলেমান ঢালীসহ জেলা বিএনপি, সদর উপজেলা বিএনপি, পৌর বিএনপি, জেলা যুবদল, সদর উপজেলা যুবদল, পৌর যুবদল, জেলা ছাত্রদল, অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীরা।
১৬ নভেম্বর, ২০২০।