মতলবে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত বাবার লাশ দাফনের পরই বিয়ের পিড়িতে ছেলে

মাহফুজ মল্লিক
ছেলেকে বিয়ে করাতে গিয়ে লাশ হলো বাবা। সে বাবার লাশ রেখেই বিয়ে করে নবদম্পতি নিয়ে ঘরে উঠলো ছেলে। মতলব দক্ষিণ উপজেলার নাগদা গ্রামে শুক্রবার বিকালে এ মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে।
এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, উত্তর নাগদা গ্রামের আবুল বকাউলের ছেলে রুবেল বকাউলের (কাতার প্রবাসী) সাথে একই গ্রামের মজিব প্রধানের মেয়ের সাথে বিয়ের দিন ধার্য্য করা হয় শুক্রবার। ওইদিন (শুক্রবার) দুপুরে ছেলের বিয়ের বাজার করতে নাগদা নিজ বাড়ীর নিকট থেকে একটি অটোবাইকে করে মতলব বাজারের উদ্দেশ্য রওয়ানা হয়। দগরপুর এলাকায় যাওয়ার পর বিপরীত দিক থেকে আসা একটি নসিমনের মুখোমুখি সংঘর্ষে অটোবাইকে থাকা আবুল খায়ের বকাউল ছিটকে নসিমনের নিচে পড়ে যায়। স্থানীয় লোকজন উদ্বার করে চাঁদপুর ২৫০ শয্যা সরকারি জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে ওইদিন বিকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। পরে তার পরিবারের লোকজন এসে আবুল খায়ের বকাউলের লাশ বাড়িতে নিয়ে দাফন করেন। এদিকে লাশ দাফন করার পর সন্ধ্যার মধ্যেই ছেলে রুবেল বকাউল বাবার পছন্দ করা মেয়েকে বিয়ে করে ঘরে তুলেন।
এ ব্যাপারে প্রতিবেশী জিলানী তালুকদার বলেন, পূূর্ব নির্ধারিত দিনতারিখ হওয়ায় পরিবারের সিদ্ধান্তে বিয়ের কাজ সম্পন্ন করা হয়।
দুর্ঘটনার বিষয়ে মতলব দক্ষিণ থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ মহিউদ্দিন মিয়া বলেন, বিষয়টি কেউ থানায় জানায়নি। সংবাদ পাওয়ার সাথে সাথে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে।

২০ জুন, ২০২১।