হানারচরে জাটকা রক্ষা ও অভয়াশ্রম বাস্তবায়নে সচেতনতামূলক সভা

 

আইন অমান্যকারীদের কোন অবস্থাতেই ছাড় দেয়া হবে না
………..জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ
আল আমিন ছৈয়াল
চাঁদপুরে জাটকা রক্ষা কার্যক্রম ও মার্চ-এপ্রিল ২ মাস পদ্মা মেঘনা নদীতে অভয়াশ্রম বাস্তবায়ন বিষয়ক সচেতনতামূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার (৩ মার্চ) বিকেলে চাঁদপুর সদর উপজেলার হানারচর ইউনিয়ন পরিষদ মাঠে সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক বেগম অঞ্জনা খান মজলিশ।
তিনি তার বক্তব্যে বলেন, জাটকা রক্ষা কার্যক্রম বাস্তবায়নে জেলেসহ সবার সহযোগিতা প্রয়োজন। মার্চ-এপ্রিল দু’মাস অভয়াশ্রম চলাকালীন সময় কোন অবস্থাতেই যেন পদ্মা মেঘনা নদীতে জেলেরা মাছ ধরছে না আসে সেজন্য সবাইকে অনুরোধ করছি। আইন অমান্য করলে কোন অবস্থাতেই ছাড় দেওয়া হবে না। যারা জেলেদের নদীতে মাছ ধরতে নৌকা ও জাল দিয়ে নদীতে নামাবে তাদের চিহ্নিত করে মামলা দেওয়া হবে। কোন অবস্থাতেই কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। জাটকা রক্ষা করতে পারলে দেশের মাছের ঘাটতি পূরণ করা সম্ভব হবে। চাঁদপুরের ইলিশ দেশের সর্বস্তরের মানুষের কাছে খুবই প্রিয়। জাতীয় সম্পদ রক্ষায় আমাদের সবার দায়িত্ব। তাই এই কার্যক্রম বাস্তবায়ন করতে আমরা যেন সবাই একত্রিত হয়ে কাজ করি।
জেলা মৎস্য কর্মকর্তা আসাদুল বাকীর সভাপতিত্বে এবং সদর উপজেলা সিনিয়র সহকারী মৎস্য কর্মকর্তা মাহবুবুর রশিদের পরিচালনায় সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ জামান, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সানজিদা শাহনাজ, চাঁদপুর কোস্টগার্ড স্টেশন কমান্ডার লেফটেন্যান্ট এম আসাদুজ্জামান, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নূরুল ইসলাম নাজিম দেওয়ান, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আবিদা সুলতানা, সদর উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা সুদীপ্ত ভট্টাচার্য, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকবাল হোসেন পাটোয়ারী, সাধারণ সম্পাদক রহিম বাদশা, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলী আরশাদ মিয়াজী, চাঁদপুর কান্ট্রি ফিশিং বোর্ডের সভাপতি শাহ আলম মল্লিক।
অনুষ্ঠানের সার্বিক ব্যবস্থাপনায় ছিলেন হানারচর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুস সাত্তার রাঢ়ী।
০৪ মার্চ, ২০২১।