মতলব উত্তরে কৃষকদের মাঝে সার, বীজ ও কম্বাইন্ড হারভেস্টর বিতরণ

মতলব উত্তর ব্যুরো
মতলব উত্তরে ২০২১-২২ অর্থবছরে খরিপ-১/২০২-২৩ মৌসুমে আউস উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে সার ও বীজ এবং ভর্তুকি মূল্যে কম্বাইন্ড হারভেস্টর বিতরণ করা হয়েছে। শুক্রবার (২৯ এপ্রিল) সকালে উপজেলা পরিষদ অডিটোরিয়ামে এই কৃষি উপাদান বিতরণ কার্যক্রম উদ্বোধন করেন চাঁদপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ অ্যাড. নুরুল আমিন রুহুল।
বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন মতলব উত্তর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা এমএ কুদ্দুস।
মতলব উত্তর উপজেলার ৩ হাজার ২০০ জন কৃষক সার ও বীজ পেয়েছেন। প্রতিজন কৃষককে ২০ কেজি করে ডিএপি সার, ১০ কেজি এমওপি এবং ৫ কেজি করে আউস ধানের বীজ দেওয়া হয়েছে। প্রতিজন কৃষক ৬৫০ টাকার কৃষি উপাদান পেয়েছেন। মোট ৩ হাজার ২০০ জন কৃষক ২০ লাখ ৮০ হাজার টাকার সার ও বীজ বিতরণ করা হয়েছে।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার গাজী শরিফুল হাসানের সভাপতিত্বে এবং উপ-সহকারী উদ্ভিদ সংরক্ষণ কর্মকর্তা মো. মজিবুর রহমানের পরিচালনায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন উপজেলা কৃষক অফিসার মো. সালাউদ্দিন।
আরো বক্তব্য রাখেন উপজেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক জিএম ফারুক ও সাংবাদিক জাকির হোসেন বাদশা। পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে এমপি নুরুল আমিন রুহুল বলেন, সময়মত কৃষকদের হাতে সার ও বীজ তুলে দেওয়া সরকারের একটি অন্যতম সফলতা। বিশ্বের কোন দেশের কোন সরকার এমনটা করে কি না আমার জানা নাই। বাংলাদেশেও শুধু আওয়ামী লীগ সরকার কৃষকদের এই সুবিধা দিয়েছে। আর যত সরকার বাংলাদেশে ক্ষমতায় ছিল তারা কেউ কৃষককের সার বীজ দেয় নাই। আওয়ামী লীগ সরকারই একমাত্র কৃষি বান্ধব সরকার। বিএনপির আমলে কৃষক সার চাওয়ায় তাদের উপর লাঠি চার্জ করা হয়েছে। কৃষকদের নির্যাতন করেছে।
তিনি আরো বলেন, বিশ্বের সাথে আমরা তাল মিলিয়ে চলতে পারছি বাংলাদেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ হওয়ায়। একটা দেশের প্রধান শক্তি হল খাদ্য। আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ। এভাবেই প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে চলছে, এগিয়ে চলবে। এই উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে প্রধানমন্ত্রীর হাতে আরো শক্তিশালী করার লক্ষ্যে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার আহ্বান জানান তিনি।

৩০ এপ্রিল, ২০২২।