পরকীয়ায় জড়িয়ে কচুয়ায় মসজিদের ইমাম বিয়ের পিঁড়িতে বসতে চান

স্টাফ রিপোর্টার
কচুয়া উপজেলায় পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়া প্রেমিক মাও. ফরহাদ হোসেন (৩০) ও প্রেমিকা তিন সন্তানের জননী প্রবাসীর স্ত্রী রোকেয়া বেগম (২৬) বিয়ের পিঁড়িতে বসতে চায়। তারা নতুন করে সুখের সংসার ঘরে তুলতে চায়। মাও. ফরহাদ হোসেন উপজেলার আকিয়ারা গ্রামের বাসিন্দা। তিনি তার প্রেমিকার গ্রামের একটি মসজিদের ইমাম।
অপরদিকে রোকেয়া বেগম উপজেলার দুর্গাপুর দক্ষিণপাড়ার প্রবাসী কলিম উল্লাহর স্ত্রী। প্রায় ৩ মাস যাবৎ তাদের মধ্যে পরকীয়া প্রেমের সম্পর্ক চলে আসছে। গত বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে রোকেয়ার ঘরে রোকেয়া ও মাও. ফরহাদ হোসেনকে আপত্তিকর অবস্থায় এলাকার লোকজনরা আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে। এ ঘটনায় কচুয়া থানার পুলিশ নন এফআইআর ৩৪/২১ মামলা দায়ের করে প্যানাল কোর্ট ২৯০ ধারায় উভয়কে গত শুক্রবার কোর্টে সোপর্দ করার মধ্য দিয়ে জেল হাজতে প্রেরণ করে।
কচুয়া থানার ওসি মো. মহিউদ্দিন জানান, পরকীয়ায় লিপ্ত হওয়া মাও. ফরহাদ হোসেন ও রোকেয়া বেগম পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে তারা কেও কাউকে ছাড়তে নারাজ। তারা উভয়ে স্বামী-স্ত্রীর বন্ধনে আবদ্ধ হতে বিয়ের ইচ্ছা প্রকাশ করে।
এদিকে রোকেয়া বেগমের স্বামী কলিম উল্লাহ প্রবাসে (ইরাকে) থাকায় তার অভিমত জানা সম্ভব না হলেও পরিবারের সদস্যরা রোকেয়াকে আর কলিম উল্লাহর স্ত্রী হিসাবে দেখতে চান না। প্রেমিক যুগলের এ কর্মকাণ্ডে এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

৯ মে, ২০২১।