ফতেপুর পূর্ব ইউনিয়নে কৃষক লীগের সম্মেলন

আ.লীগ সরকার মানেই কৃষকবান্ধব সরকার

………মুক্তিযোদ্ধা এমএ কুদ্দুস

মনিরুল ইসলাম মনির

মতলব উত্তর উপজেলার ফতেপুর পূর্ব ইউনিয়ন কৃষকলীগের ৯টি ওয়ার্ড কমিটির ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার (২৭ অক্টোবর) বিকালে উপজেলার রসুলপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মাঠে আয়োজিত সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন মতলব উত্তর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা এমএ কুদ্দুস।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মুক্তিযোদ্ধা এমএ কুদ্দুস বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার মানেই কৃষকবান্ধব সরকার। শেখ হাসিনার সরকার মানেই কৃষক দরদী নেত্রী। তাই আমরা নিজেদের ভাগ্যবান মনে করি এজন্য যে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে কৃষিসহ প্রতিটি সেক্টরে আমরা সফল। শেখ হাসিনার কৃষকদের দৃঃখ বুজেন। তিনি বলেছেন কৃষক বাঁচলে দেশ বাঁচবে কৃষক বাঁচলে আমরা বাঁচবো। তাই তিনি কৃষকদের প্রতি সবসময় খোঁজ-খবর নেন।

এমএ কুদ্দুস আরও বলেন, বিএনপি সরকার কৃষকদের গুলি করেছিল। কৃষকরা যখন তাদের দাবি আদায় করার জন্য রাস্তায় নামে তখন বিএনপি সরকার কৃষকদের অনেক অত্যাচার নির্যাতন করেছে। কিন্তু আওয়ামী লীগ সরকার কৃষকদের বিভিন্ন সহায়তা করছে। সার, বীজ থেকে শুরু করে ভতুর্কি দিচ্ছেন। শুধু তাই নয় ভতুর্কি দিয়ে কৃষকদের কাছ থেকে ধান ক্রয় করছে সরকার। যাতে করে কৃষকরা লাভবান হয়। তিনি বলেন, আজ যারা কৃষক লীগ করছেন, কৃষকদের প্রতিনিধিত্ব করছেন, তারা অত্যন্ত ভাল করছেন। আপনারা কৃষকদের কথা বলবেন। মানুষের কথা বলবেন। আমি আপনাদের ধন্যবাদ জানাই উপজেলার পাশাপাশি ইউনিয়ন কৃষক লীগের কমিটিগুলো ভাল করে সাজাচ্ছেন। কৃষক লীগ একটি সুসংগঠিত সংগঠন। আপনারা সরকারের উন্নয়নের সহায়তা করার লক্ষ্যে কাজ করে যাবেন।

সম্মেলনে সভাপতিত্ব করেন ও স্বাগত বক্তব্য রাখেন ফতেপুর পূর্ব ইউনিয়ন কৃষক লীগের সভাপতি এমরান হোসেন চৌধুরী রাজু। ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক তোফায়েল শিকদারের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রিয় কৃষক লীগের সহ-স্থানীয় সম্পাদক সামিউল বাসির বিন হোসেন, উপজেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক জিএম ফারুক, উপজেলা আওয়ামী লীগের অর্থ বিষয়ক সম্পাদক মিজানুর রহমান, ফতেপুর পূর্ব ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী সালাউদ্দিন, উপজেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি রিপন পাটোয়ারী, ফতেপুর পূর্ব ইউনিয়ন কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির সভাপতি মো. জয়নাল আবেদীন, উপজেলা কৃষক লীগের দপ্তর সম্পাদক আলী আর্শাদ প্রমুখ। অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন মাওলানা আজাদ হোসেন।

উপস্থিত ছিলেন ফতেপুর পূর্ব ইউনিয়ন কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী মোস্তাক আহমেদ, সহ-সভাপতি গিয়াস উদ্দিন মীর, সহ-সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান, সহ-সভাপতি আব্দুল মান্নান, সাংগঠনিক সম্পাদক বিল্লাল হোসেন, সুলতানাবাদ ইউনিয়ন কৃষক লীগের সভাপতি সাইফুল ইসলাম স্বপন, ফতেপুর পুর্ব ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মিনহাজুল ইসলাম টুটুল, আওয়ামী লীগ নেতা গিয়াস উদ্দিন, ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি আবুল হাসনাত, সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াস প্রধান, ছাত্রলীগ নেতা সুজন ভূঁইয়াসহ রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ।

সভার দ্বিতীয় অধিবেশনে উপজেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক জিএম ফারুক ফতেপুর পূর্ব ইউনিয়ন কৃষক লীগের ৯টি ওয়ার্ড কমিটি ঘোষণা করেন। ১নং ওয়ার্ডে সভাপতি রুহুল আমিন মিয়াজী, সাধারণ সম্পাদক আলী আজম পাটোয়ারী, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল মান্নান পাটোয়ারী। ২নং ওয়ার্ডে সভাপতি শাহাদাত হোসেন প্রধান, সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান ভুইয়া, সাংগঠনিক ইয়ার হোসেন প্রধান। ৩নং ওয়ার্ডে সভাপতি নাছির উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক আনিছুর রহমান, সাংগঠনিক আলাউদ্দিন সরকার। ৪নং ওয়ার্ডে সভাপতি মো. মাইনুদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক মো. রজ্জব আলী, সাংগঠনিক নিজাম উদ্দিন। ৫নং ওয়ার্ডে সভাপতি ফয়েজ মোল্লা, সাধারণ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, সাংগঠনিক কবির ভুইয়া। ৬নং ওয়ার্ডে সভাপতি কুদ্দুস বেপারী, সাধারণ সম্পাদক আলমগীর সরকার, সাংগঠনিক সিদ্দিক বেপারী। ৭নং ওয়ার্ডে সভাপতি আবুল কালাম সরদার, সাধারণ সম্পাদক মোকসেদ আলী, সাংগঠনিক মনছুর খান। ৮নং ওয়ার্ডে সভাপতি ওয়াদুদ বেপারী, সাধারণ সম্পাদক জসিম উদ্দিন, সাংগঠনিক লেয়াকত আলী। ৯নং ওয়ার্ডে সভাপতি সফিক বেপারী, সাধারণ সম্পাদক মকবুল হোসেন ঢালী, সাংগঠনিক সম্পাদক শাহআলম চৌধুরী।

ফতেপুর পূর্ব ইউনিয়ন কৃষক লীগের সভাপতি এমরান হোসেন চৌধুরী রাজু কৃষক লীগকে চাঙ্গা করতে প্রায় দেড় মাস অক্লান্ত পরিশ্রম করে মাঠে-ময়দানে কাজ করে ৯টি ওয়ার্ডের কমিটি প্রস্তুত করে উপহার দিলেন। তার সাথে সাধারণ সম্পাদকসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ সহযোগিতায় ছিলেন।

২৮ অক্টোবর, ২০২০।