সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম গণতন্ত্রের জন্য হুমকি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম গণতন্ত্রের জন্য হুমকি বলে মন্তব্য করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোয়ান। স্থানীয় সময় শনিবার ( ১১ ডিসেম্বর) তিনি এ মন্তব্য করেন।
তুরস্কের এরদোয়ান সরকার অনলাইনে ভুয়া তথ্য ও সংবাদ ছড়ানোর বিষয়টি অপরাধ হিসেবে গণ্য করছে। তবে সমালোচকরা বলছেন, এটি বাক স্বাধীনতার ওপর হস্তক্ষেপ করার অপচেষ্টা।
প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান বলেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারের শুরুর দিকে এটি স্বাধীনতার প্রতীক হিসেবে সমাদৃত হয়েছিল, কিন্তু এখন এটি আজকের গণতন্ত্রের জন্য হুমকির অন্যতম প্রধান উৎসে পরিণত হয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে সত্যকে প্রতিষ্ঠা করার লক্ষ্যে ভুয়া তথ্য ও প্রোপাগান্ডা ছড়ানোর বিরুদ্বে দাঁড়াতে দেশটির জনগণকে অবহিত করা গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করেন তিনি।
তিনি বলেন, আমরা আমাদের জনগণকে, বিশেষ করে যারা ঝুঁকিপূর্ণ পরিবেশে বাস করেন তাদের মাঝে ভুল ও মিথ্যা তথ্য ছড়িয়ে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করা থেকে রক্ষার চেষ্টা করছি, তাদের সঠিক ও নিপেক্ষ তথ্য পেতে সহায়তা করছি।
দীর্ঘদিন ধরে ক্ষমতায় থাকা তুরস্কের এই প্রেসিডেন্ট আরও বলেন, নিয়ন্ত্রণের কার্যকর পদক্ষেপের কৌশলের অভাবে ভুয়া তথ্য ছড়ানোর কারণে বহু মানুষের জীবন অন্ধকারে চলে গেছে।
তুরস্ক গত বছর এ সংক্রান্ত একটি আইন পাস করে। আইন অনুযায়ী, এক মিলিয়নেরও বেশি ব্যবহারকারীর প্ল্যাটফর্মকে আইনী প্রক্রিয়া মেনে চলতে হবে এবং ডাটা সংরক্ষণ করতে হবে। দেশটিতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক, ইউটিউব এবং টুইটারসহ আরও অনেক কোম্পানি কাজ করছে। কেউ ভুয়া তথ্য বা সংবাদ ছড়ালে বিষয়টি অপরাধ বলে গণ্য হবে এবং এই অপরাধের সাজা পাঁচ বছর পর্যন্ত কারাদণ্ডও হতে পারে। সূত্র: আল-জাজিরা।

১৩ ডিসেম্বর, ২০২১।