মতলব উত্তরে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সংস্কার কাজ পরিদর্শনে উপজেলা চেয়ারম্যান

মনিরুল ইসলাম মনির
মতলব উত্তর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা বিভাগের অধীনে চলতি অর্থবছর উপজেলার ৪০টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ক্ষুদ্র মেরামত প্রকল্পের আওতায় সংস্কার কাজ চলছে। চলমান উন্নয়ন কাজের অগ্রগতি পরিদর্শনে গত সোমবার উপজেলার ফরাজীকান্দি, এখলাছপুর ইউনিয়নের বেশ কটি বিদ্যালয়ে আসেন মতলব উত্তর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা এমএ কুদ্দুস।
আমিনপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন শেষে বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটি ও শিক্ষক এবং অভিভাবক মহলের সঙ্গে মতবিনিময় সভা করেছেন।
আমিনপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতির সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন মতলব উত্তর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা এমএ কুদ্দুস।
তিনি বলেছেন, মতলব উত্তর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা বিভাগের অধীনে চলতি অর্থবছর উপজেলার ৪০টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ক্ষুদ্র মেরামত প্রকল্পের আওতায় সংস্কার কাজ চলছে। সরকার অবকাঠামোগত উন্নয়নের মাধ্যমে উপজেলার প্রতিটি বিদ্যালয়ের আধুনিকায়নকল্পে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নিয়েছেন। যাতে সুন্দর পরিবেশ নিশ্চিতের মাধ্যমে বিদ্যালয়ে কোমলমতি শিক্ষার্থীরা পাঠ গ্রহণ করতে পারে। আশা করি চলমান প্রকল্পের আওতায় টেকসই ও স্বচ্ছভাবে বিদ্যালয়ের উন্নয়ন কাজ সমাপ্ত করতে হবে। সেজন্য বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটি ও শিক্ষকমন্ডলীকে দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করতে হবে।
তিনি আরো বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার সফল নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ সরকার নতুন প্রজন্মের জন্য মেধা নির্ভর শিক্ষার দ্বার উম্মেচন করছে। তাঁর সদিচ্ছায় আজ শিক্ষার্থীরা বিনা বেতনে লেখাপড়া করছে। উপবৃত্তি সুবিধা পাচ্ছে। মিড ডে মিল কর্মসূচীর আওতায় দুপুরে বিদ্যালয়ে দেয়া হচ্ছে খাবার। আগামি দিনের দেশ গড়ার কারিগর নতুন প্রজন্ম ও শিক্ষার্থীদের সুনাগরিক হিসেবে তৈরী করতে হবে। লেখাপড়ার পাশাপাশি ক্রীড়া সাংস্কৃতিক চর্চা করতে হবে। একই সঙ্গে শিক্ষার্থীদের আদর্শবান সুনাগরিক হিসেবে গড়ে তুলতে সবাইকে কাজ করতে হবে। নতুন প্রজন্মের শিক্ষার্থীদের জন্য শিক্ষাবান্ধব সুন্দর মতলব গড়তে আমি সবার কাছে সহযোগিতা চাই। আশা করি সবাই ভালো কাজের সঙ্গে থাকবেন। শিক্ষার মানোন্নয়নে আমরা যেকোনো পদক্ষেপ নিতে প্রস্তুত। মতলব উত্তরে শিক্ষার হার অনেক এগিয়ে নিতে হবে। জাতির উন্নতি চাইলে শিক্ষার মানোন্নয়ন করতে হবে। একমাত্র শিক্ষাই পারে জাতিকে এগিয়ে নিতে।
বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. ইকবাল হোসেন ভূঁইয়া। আরো বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক সাবেক ভাইস-চেয়ারম্যান আইয়ুব আলী গাজী। এ সময় শিক্ষানুরাগী সাইফুদ্দীন সরকার, শিক্ষকবৃন্দ ও এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।
একই দিনে তিনি ৬৫নং এখলাছপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ৬৬নং এখলাছপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও ৬৮নং এখলাছপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়র উন্নয়ন কাজ, বঙ্গবন্ধু কর্নার পরিদর্শন এবং অভিভাবকদের সঙ্গে বিভিন্ন বিষয়ে মতবিনিময় করেন।